মেইন ম্যেনু

রাজশাহীতে তৈরি হলো মানব শহীদ মিনার

ভাষা আন্দোলনের প্রথম শহীদ মিনার রাজশাহী কলেজে। এবার তৈরি হলো মানব শহীদ মিনার। এ দুই কীর্তিতে ইতিহাসের অংশ হয়ে রইলো ঐতিহাসিক এই কলেজে।

মঙ্গলবার মহান (২১ ফেব্রুয়ারি) ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে সকাল ১০টায় রাজশাহী কলেজ মাঠে শিক্ষার্থীরা শহীদ মিনারের আদলে তৈরি করেন স্মৃতির এ মিনার।

এতে অংশ নেন, কলেজের উচ্চ মাধ্যমিকের ২০১৮ ব্যাচের ছয়শ জন শিক্ষার্থী। হাতে সাদা প্ল্যাকার্ড নিয়ে অংশ নেন সবাই। সামনের মাঝ বরাবর সাজানো ছিলো বর্ণমালা। এর একপাশে রাজশাহী কলেজ এবং অন্যপাশে এইচএসসি-১৮ লেখা।

এসময় উস্থিত ছিলেন, কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মহা. হবিবুর রহমান, উপাধ্যক্ষ প্রফেসর আল ফারুক চৌধুরী, শিক্ষক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক প্রফেসর ড. জুবাইদা আয়েশা সিদ্দিকা প্রমুখ।

পরে উপস্থিত সবাই শ্রদ্ধা জানান মানব এ শহীদ মিনারে।

রাজশাহী কলেজের অধ্যক্ষ হবিবুর রহমান বলেন, রাজশাহী কলেজ সৃজনশীলতার প্রতীক। শিক্ষার্থীরা নিজেই এসে বলে, তারা শহীদ মিনার তৈরি করবে। গত বছর আমরা মানব পতাকা তৈরি করেছি। এবার শিক্ষার্থীরা মানব শহীদ মিনার তৈরি করলো।

রাজশাহীর ভাষা সৈনিকদের বিভিন্ন সময়ের বর্ণনা ও বক্তৃতা থেকে জানা যায়, ভাষার দাবিতে প্রথম রক্ত ঝরেছিলো রাজশাহী কলেজেই। রাজশাহী কলেজেই নির্মাণ করা হয় প্রথম শহীদ মিনার। কিন্তু আজো রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতি পায়নি এ শহীদ মিনার।

তিনি বলেন, রাজশাহী কলেজের যে স্থানটিতে দেশের প্রথম শহীদ মিনার নির্মাণ করা হয়েছিল সেখানে ৫২ ফিট উচ্চতার একটি শহীদ মিনার নির্মাণ করা হবে।

শিক্ষার্থীরা ডিসপ্লেতে সেই শহীদ মিনার তৈরি করে দেখিয়েছে। নতুন শহীদ মিনার নির্মাণ প্রক্রিয়া চলছে। এ জন্য ৫০ লাখ টাকা বরাদ্দ হয়েছে। শহীদ মিনারের নকশাও তৈরী হয়েছে। রাজশাহী সিটি করপোরেশন এ প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করবে বলে জানান অধ্যক্ষ হবিবুর রহমান।






মন্তব্য চালু নেই