মেইন ম্যেনু

কলারোয়া (সাতক্ষীরা) সংবাদ (১০/১০/১৪)

কলারোয়ায় বজলুর রহমান স্মৃতি ফুটবল টুর্নামেন্টের উদ্বোধন:
কলারোয়ায় ৪র্থ বজলুর রহমান স্মৃতি ফুটবল টুর্নামেন্টের উদ্বোধন করা হয়েছে। উদ্বোধনী খেলায় মাধবকাটি পঞ্চগ্রাম যুব সমিতি ২-০ গোলে পাথরঘাটা ফুটবল একাদশকে পরাজিত করে সেমিফাইনাল নিশ্চিত করে। শনিবার বিকেলে কলারোয়া ফুটবল মাঠে আয়োজিত ওই খেলার প্রথমার্ধে গোলশুন্য থাকে। দ্বিতীয়ার্ধের শেষ মুহুর্তে বিজয়ী দলের ১৩নং জার্সি পরিহিত সাদ্দাম ও ৭নং জার্সি পরিহিত ইলিয়াস পরপরই গোল দু’টি করেন। এর আগে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে টুর্নামেন্টের উদ্বোধন ঘোষনা করেন উপজেলা চেয়ারম্যান ফিরোজ আহম্মেদ স্বপন। এসময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ভাইস চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম লাল্টু, ইসলামী ব্যাংকের ভাইস প্রেসিডেন্ট আব্দুর রহমান, উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সা.সম্পাদক জাহিদুর রহমান খাঁন চৌধুরী, কপাই সা.সম্পাদক এড.শেখ কামাল রেজা, প্রধান শিক্ষক এমএ রব, অবসরপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আ.রউফ, পৌর কাউন্সিলর মনিরুজ্জামান বুলবুল, কপাই সহ.সভাপতি শেখ শহিদুল ইসলাম, যুগ্ম সম্পাদক বদরুজ্জামান বিপ্লব, মর্ডান হারবাল গ্র“পের উপদেষ্টা শেখ শফিউল আজম, শ্রমিকলীগের সভাপতি আ.রহিম, কাজী আ.ওহাব, কলারোয়া প্রেসক্লাবের সভাপতি গোলাম রহমান, সা.সম্পাদক মাস্টার রাশেদুল হাসান কামরুল, যুগ্ম সম্পাদক প্রভাষক আরিফ মাহমুদ, রিপোটার্স ক্লাবের সভাপতি আজাদুর রহমান খাঁন চৌধুরী পলাশ, ক্রীড়া সংগঠক মঞ্জুরুল আলম লিটন, খালিদ, শাওন রহমান, পৌর আ’লীগ সা.সম্পাদক শহিদুল ইসলাম প্রমুখ। এমআর ফাউন্ডেশন, কলারোয়া পাবলিক ইন্সটিটিউট ও উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার যৌথ ব্যবস্থাপনায় এ আসরের অর্থায়ন করছেন বীর মুক্তিযোদ্ধা মিজানুর রহমান। খেলাটি পরিচালনা করেনমাসউদ পারভেজ মিলন, ফারুক হোসেন স্বপন, মোশারফ হোসেন ও ৪র্থ রেফারী আলহাজ্ব আ.রহিম বাবু। ধারাভাষ্যে ছিলেন প্রভাষক রফিকুল ইসলাম, মাস্টার শেখ শাহাজাহান আলী শাহীন ও মীর রফিকুল ইসলাম। শনিবার বিকেলে একই মাঠে ৮দলীয় নকআউট এ টুর্নামেন্টের ১ম পর্বের ২য় খেলায় কেশবপুর মধুচক্র ও কলারোয়া ফুটবল একাডেমি পরষ্পরের মুখোমুখি হবে।

কলারোয়ায় যুবকের আত্মহত্যা:
কলারোয়ায় এক যুবক আত্মহত্যা করেছে। জানা গেছে, উপজেলার বোয়ালিয়া গ্রামের মহব্বত আলীর পুত্র রাসেল (১৮) বৃহষ্পতিবার রাত ২টার দিকে ঘরে রাখা বিষপান করে। পরে তাকে কলারোয়া হাসপাতালে নেয়ার পর সে মৃত্যুর কোলে ঢোলে পড়ে। পারিবারিক অশান্তির কারণে সে আত্মহত্যা করে থাকতে পারে বলে প্রাথমিক ভাবে ধারনা করা হচ্ছে। এ ব্যাপারে কলারোয়া থানায় ইউডি মামলা হয়েছে।

কলারোয়ায় দূর্বৃত্তদের দেয়া আগুনে ঝলসে গেলো মা-সন্তানসহ একই পরিবারের ৪জন ॥ দুই শিশুপুত্রের অবস্থা আশংকাজনক ॥ আহতের ভাই গ্রেফতার:
কলারোয়ায় দূর্বৃত্তদের দেয়া আগুনে ঝলসে গেছে মা-সন্তানসহ একই পরিবারের ৪জন। এদের মধ্যে দুই শিশুপুত্রের অবস্থা আশংকাজনক। আহতের ভাইকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ন্যাক্কারজনক এ ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার লাঙ্গলঝাড়া গ্রামে বৃহষ্পতিবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে। জানা গেছে, লাঙ্গলঝাড়া গ্রামের মৃত জামাল সরদারের পুত্র কলারোয়া শেখ আমানুল্লাহ কলেজের সহকারী অধ্যাপক খলিলুর রহমান (৪৫), তার স্ত্রী শাহানারা খাতুন (৩৫), দুই পুত্র আসাদুজ্জামান (১১) ও তামিম (৬) প্রতিদিনের ন্যায় ঘরে ঘুমিয়ে ছিলেন। মা ও দুই পুত্র খাটের উপর এবং গরমের কারণে খলিলুর রহমান মেঝেতে শুয়ে ছিলেন। রাত সাড়ে ১২টা/১টার দিকে খাটের পাশের খোলা জানালা দিয়ে দূর্বৃত্তরা ঘরের মধ্যে পেট্রোল ছিটিয়ে আগুন ধরিয়ে দেয়। এতে চোখের পলকে আগুনে ঝলসে যায় খাটের উপর শুয়ে থাকা মা ও দুই শিশুপুত্র। তাৎক্ষনিক তাদের উদ্ধার করতে গিয়ে আহত হন খলিলুর রহমানও। গুরুতর আহতাবস্থায় প্রতিবেশিরা তাদেরকে উদ্ধার করে রাতেই সাতক্ষীরায় হাসপাতালে ভর্তি করে। তাদের অবস্থার অবনতি হলে বৃহষ্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ঝলসে যাওয়া আহতদের ঢাকায় প্রেরণ করা হয়। তাদের মধ্যে দুই পুত্র আসাদুজ্জামান ও তামিমের অবস্থা আশংকাজনক এবং মা শাহানারার অবস্থাও গুরুতর। স্থানীয়রা জানান, আগুনে বসতঘরের বেশকিছু আসবাবপত্র পুড়ে গেছে। ঝলসানো শরীরের চামড়া বিভিন্ন স্থানে ঝুলতে দেখা গেছে। লাঙ্গলঝাড়া ইউপি চেয়ারম্যান অধ্যাপক এমএ কালাম জানান, অত্যন্ত নিরেট ভালো মানুষ খলিলুর রহমানের কোন শত্র“ আছে বলে আমাদের ধারণা নেই। তবে পূর্ব শত্র“তার জের ধরেই এ ন্যাক্কারজনক ঘটনাটি ঘটতে পারে বলে প্রাথমিক ভাবে ধারনা করা হচ্ছে। রাতেই আমরা ক্ষতিগ্রস্থদের পাশে দাড়িয়েছি। দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান তিনি। এদিকে, সকাল থেকে বিপুল সংখ্যক লোকজন কলারোয়া থানার সামনে জড়ো হয় আহতদের একনজর দেখার জন্য। সেখানে এক হৃদয় বিদারক দৃশ্যের অবতারনা হয়। খবর পেয়ে বৃহষ্পতিবার ভোরেই সাতক্ষীরা-১ আসনের সাংসদ এড.মুস্তফা লুৎফুল্লাহ, উপজেলা চেয়ারম্যান ফিরোজ আহম্মেদ স্বপন, ভাইস চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম লাল্টু, ইউপি চেয়ারম্যান অধ্যাপক এমএ কালামসহ আইনশৃংখলা বাহিনীর কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। কলারোয়া থানার ওসি শেখ আবু সালেহ মাসুদ করিম সহ আইনশৃংখলা বাহিনীর সদস্যরা ঘটনাস্থলে সাড়াশি অভিযান চালিয়েছেন। পারিবারিক জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধে জের ধরে এমন হীন কাজ সংঘটিত হয়ে থাকতে পারে বলে স্থানীয়রা জানান। ডিবি ও কলারোয়া থানা পুলিশের যৌথদল সাতক্ষীরা থেকে বেলা ৩টার দিকে আহত অধ্যাপক খলিলুর রহমানের মেঝ ভাই তবিবুর রহমান (৫০) কে ঘটনার সাথে জড়িত থাকার সন্দেহে গ্রেফতার করে। ওসি শেখ আবু সালেহ মাসুদ করিম জানান, ঘটনার সাথে জড়িত কোন দোষীই রেহাই পাবে না। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রক্রিয়া চলছে বলে জানা গেছে।

কলারোয়ায় বঙ্গবন্ধু স্মৃতি ফুলবল টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত:
কলারোয়ায়র বলিয়ানপুরে বঙ্গবন্ধু স্মৃতি ফুলবল টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত হয়েছে। ঈদুল আযহা উপলক্ষ্যে স্থানীয় ফুটবল মাঠে আয়োজিত খেলায় ৪টি দল অংশ গ্রহন করেন। খেলায় চ্যাম্পিয়ন হয় বহুড়া বলিয়ানপুর ইউনাইটেড ক্লাব ও রানাসআপ হয় কাজিরহাট ফুটবল একাদশ। পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন আওয়ামী সাংস্কৃতিক জোটের কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কামরুজ্জামান সোহাগ। এসময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মালয়েশিয়া আ’লীগের বন ও পরিবেশ সম্পাদক ফারুক হোসেন অভি, বিআরডিবি’র সিবিএ এর কেন্দ্রীয় কমিটির প্রচার সম্পাদক জিএম জাকির হোসেন, কেরালকাতা ইউনিয়ন আ’লীগের সাবেক সভাপতি আবুবক্কার সিদ্দিক, ডা. আব্দুল করিম, সরদার আ. রউফ, জিএম জালালউদ্দিন, লিটন হোসেন, সাবেক ভিপি হাসান শহারিয়ার সুমন, ইউপি সদস্য রবিউল ইসলাম, আ’লীগ নেতা আনছার আলী, সাবেক ছাত্রনেতা গোলাম ছরোয়ার, পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি মাফুজুর রহমান মাহফুজ প্রমুখ।

সোনাবাড়িয়ায় ঈদ পূর্ণমিলনী:
কলারোয়ার সোনাবাড়ীয়া হাইস্কুলে এক্র-স্টুডেন্ট এসোসিয়েশনের উদ্যোগে ঈদ পূর্ণমিলনী অনুষ্ঠিত হয়েছে। ঈদের পরদিন মঙ্গলবার দিনভর আয়োজিত ওই অনুষ্ঠানে এক্র-স্টুডেন্ট মনিরুজ্জামানের সভাপতিত্বে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী সাংস্কৃতিক জোটের কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কামরুজ্জামান সোহাগ, স্কুল ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি জিএম মিজানুর রহমান, স্কুলের সহকারী প্রধান শিক্ষক জিয়াউর রহমান, মালয়েশিয়া আ’লীগের বন ও পরিবেশ সম্পাদক ফারুক হোসেন অভি, বিআরডিবি’র সিবিএ এর কেন্দ্রীয় কমিটির প্রচার সম্পাদক জিএম জাকির হোসেন প্রমুখ। পরে এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।






মন্তব্য চালু নেই