মেইন ম্যেনু

যে ভিটাতে জন্ম, সে ভিটাতেই দাহ

সুনামগঞ্জের দিরাইয়ে আনোয়ারপুরের পৈতৃক ভিটায় সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের শেষকৃত্যানুষ্ঠান হবে। যে ভিটাতে জন্ম, সে ভিটাতেই দাহ হবে সুরঞ্জিতের।

এদিকে সোমবার সকাল থেকে শেষকৃত্যানুষ্ঠানে যোগ দিতে এবং প্রিয় নেতাকে শেষবারের মতো একনজর দেখতে জেলা, উপজেলা ও প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে দলীয় নেতা কর্মী ছাড়াও বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-শিক্ষার্থী, মুক্তিযোদ্ধা ও সাংবাদিক সমাজসহ সর্বস্তরের কয়েক হাজার লোকজন সমবেত হয়েছেন আনোয়ারপুরের বাসায়।

রোববার সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে দিরাই-শাল্লার প্রতিটি শিক্ষা, ব্যবসা-বাণিজ্য ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানগুলোতে কালো পতাকা উত্তোলনের মধ্যে দিয়ে সেনগুপ্তের প্রতি শোক ও শ্রদ্ধা প্রকাশ করছেন তার নির্বাচনী এলাকার মানুষ।

আজ সকাল থেকে হাজার হাজার জনতা কালোব্যাজ লাগিয়ে শেষকৃত্যানুষ্ঠানে যোগ দিতে সমবেত হচ্ছেন আনোয়পুরের বাসার সামনে।

এদিকে পিতা-মাতার শেষকৃত্যানুষ্ঠানের পাশেই সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের শেষ ইচ্ছানুযায়ী ‘যে ভিটাতে জন্ম, সে ভিটাতেই তাকে দাহ করা হবে।

তার নিজ হাতে লাগানো দুটি লাল চন্দন গাছের কাঠ ও চিতা প্রস্তুত রাখা হয়েছে।

পারিবারিক সুত্র জানায়, সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত দিরাইয়ের পৈতৃক ভিটা আনোয়ারপুরে বাসায় নিজ হাতে দু’টি লাল চন্দন গাছ লাগিয়েছিলেন তিনি। তার ইচ্ছানুযায়ী সেই চন্দন কাঠেই তার দাহ সম্পন্ন করা হবে।






মন্তব্য চালু নেই