মেইন ম্যেনু

যা দেখেছেন, আপনারা দেখান : সাংবাদিকদের সিইসি

তিন সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ব্যাপকভাবে ভোটকেন্দ্র দখল, গোলাগুলি ও সহিংসতার বিষয়ে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী রকিব উদ্দিন আহমদ বলেছেন, ‘কোনো মন্তব্য নাই। যা দেখেছেন আপনারা দেখান।’

মঙ্গলাবর দুপুরে রাজধানীর উত্তর সিটির ভোটকেন্দ্র রেসিডেন্টসিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজ পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নে তিনি এ কথা বলেন।

বেলা সাড়ে ১১টার পর নির্বাচন কমিশন সচিবালয় থেকে বের হয়ে প্রথমে ঢাকা দক্ষিণের অন্তর্গত ধানমণ্ডির কাকলী হাই স্কুল অ্যান্ড কলজের ভোটকেন্দ্র পরিদর্শন করেন। সেখানে ভোটারদের তেমন একটা উপস্থিতি দেখা যায়নি। এক বুথে গিয়ে দেখা যায়, সকাল থেকে বেলা পৌনে ১২টা পর্যন্ত মাত্র ৪৩টি ভোট পড়েছে।

এই কেন্দ্রে কোনো বুথেই বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী আব্বাসের মগ মার্কার কোনো এজেন্ট পাওয়া যায়নি। তবে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী সাঈদ খোকনের এজেন্ট পাওয়া গেছে একাধিক।

অবশ্য ফাহিমা জামিল নামের একজন নারী নিজেকে মগ প্রতীকের এজেন্ট বলে দাবি করেন। তবে তার কাছে কোনো আইডি কার্ড এবং তিনি যে মগ প্রতীকের এজন্টে এর কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি।

এরপর সিইসি পরিদর্শন করেন ঢাকা উত্তর সিটির ভোটকেন্দ্র ধানমণ্ডির রেসিডন্টসিয়াল মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজ। কেন্দ্র পরিদর্শন শেষে বের হলে সাংবাদিকরা সিইসির দৃষ্টি আকর্ষণ করার চেষ্টা করেন। তবে তিনি এ সময় সাংবাদিকদের কাছে কোনো ধরনের মন্তব্য করতে চাচ্ছিলেন না। পুলিশ তাকে সবদিক থেকে ঘিরে রেখেছিল।

এ সময় তিন সিটিতেই ব্যাপক সহিংসতা, গোলাগুলি ও অরাজকতা পরিস্থিতি নিয়ে ইসির মন্তব্য জানতে চাইলে গাড়িতে উঠতে উঠতে সিইসি বলেন, ‘কোনো মন্তব্য নেই। যা দেখেছেন আপনারা দেখান।’

এদিকে সিইসির গাড়িবহরে পুলিশ ও সাংবাদিকদের মধ্যে ধাক্কা ধাক্কি হয়। ডিএমপি কমিশনার আসাদুজ্জামান মিয়া নিজেই বেসরকারি টেলিভিশন এনটিভি, বাংলাভিশন, যমুনা ও ইটিভির ক্যামেরাপার্সন ও রিপোর্টারসহ কয়েকজন সাংবাদিককে ধাক্কাতে ধাক্কাতে সড়িয়ে দিয়ে সিইসিকে দ্রুত গাড়িতে উঠিয়ে দেন। পরে তিনি কেন্দ্র ত্যাগ করেন।






মন্তব্য চালু নেই