মেইন ম্যেনু

সুরমায় ভাসবে রেস্তোরাঁ, খাবার সঙ্গে থাকবে বিনোদন

‘সিলেট রক্ষণশীল এবং প্রগতিশীল। যখন যেখানে যা প্রয়োজন সেটাই সিলেটের লোকজন করে দেখায়।’ শুক্রবার রাত ১১টায় সিলেটের সুরমা নদীতে ‘সুরমা রিভার ক্রুজ’র উদ্বোধন করতে গিয়ে এমনটাই জানালেন স্বয়ং অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।

বললেন, ‘কোনো কিছু করতে গিয়ে যদি জনসাধারণের সহযোগিতা পাওয়া না যায় তবে সেটা টিকে না। আর সিলেটে বিনোদনের সুযোগ-সুবিধাসহ এমন রেস্তোরাঁ করতে পারা প্রগতির উদাহরণ।’

মন্ত্রী বলেন, ‘রক্ষণশীলতা ছাড়া মূল্যবোধ টিকিয়ে রাখা যায় না। তাই রক্ষণশীলতারও প্রয়োজন আছে। তবে যেটা যেখানে প্রয়োজন সেটা করতে হবে।’

রাত ১১টায় যখন মন্ত্রী ক্বীনব্রিজ সংলগ্ন নদী তীরে মঞ্চে বক্তব্য রাখছিলেন তখন পুরো এলাকাজুড়ে উৎসুক জনতার ভিড়ে রাস্তায় যানচলাচল বন্ধ হয়ে যায়। ক্বীনব্রিজের উপর থেকেও কয়েক হাজার দর্শক তখন মুখ উচিয়ে চেয়ে আছেন ঝমকালো এই নতুন আয়োজনের দিকে।

এর আগে মন্ত্রী নতুন ভাসমান রেস্তোরাঁয় সুরমা নদীতে বেশকিছু সময় কাটান। একই সঙ্গে উপভোগ করেন বিনোদন ও খাবারের এই নতুন সংস্করণ।

বক্তৃতা দিতে গিয়ে আবুল মাল বলেন, ‘আমি টেমস নদীতে এমন সুযোগ-সুবিধা সম্বলিত ভাসমান রেস্তোরাঁ দেখিনি। এটা মনে হয়েছে কায়রোর নীল নদে গড়ে ওঠা রেস্তোরাঁর আদলে সকল সুযোগ-সুবিধা রেখে গড়ে তোলা হয়েছে।’

সন্ধ্যার পর থেকে ঝমকালো অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। একজন ক্লোজআপ তারকাসহ স্থানীয় শিল্পিরা তখন গানে গানে প্রাণ জুড়িয়ে আগত দর্শকদের মন মাতিয়ে তোলেন।

অর্থমন্ত্রী রাত ১০টার দিকে দক্ষিণ সুরমার ঝালোপাড়াঘাট থেকে ভাসমান স্টিমারে রেস্টুরেন্টটিতে চড়নে। তিনি সুরমা নদী ঘুরে শহরের দৃষ্টিনন্দন ঐতিহ্যবাহী আলী আমজদের ঘড়ি সংলগ্ন চাদনীঘাটে নামেন। পরে তিনি রেস্তোরাঁর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন।

আধুনিক এই বিনোদন স্টিমারটি ঘাটে এসে পৌঁছলে উৎসুক সিলেটবাসী এই তরীটি দেখার জন্য চাদনীঘাটে এসে ভিড় করেন। একসঙ্গে ২৫০ জন মানুষের বসার হল রুম, নিচে কনফারেন্স রুম, উপরে ভিআইপি রুম, ৬টি অত্যাধুনিক বাথরুম ও দুটি বেড রুমসহ সম্পূর্ণ শীততাপ নিয়ন্ত্রিত এই ভাসমান রেস্তোরাঁ।

রেস্তোরাঁর পরিচালক মিশফাক আহমদ চৌধুরী মিশুর পরিচালনায় অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন এনটিসির চেয়ারম্যান ও সাবেক সচিব ড. একেএম আব্দুল মুবিন, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠানিক সম্পাদক মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ, সিলেট সিটি করপোরেশনের সাবেক মেয়র বদর উদ্দিন আহমদ কামরান, শিফা হাফিজ প্রমুখ।

এসময় স্বাগত বক্তব্য রাখেন, ‘সুরমা রিভার ক্রুজ’র পরিচালক শান্ত দেব। এছাড়াও অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, ‘সুরমা রিভার ক্রোজ’র পরিচালক সজিব রঞ্জন দাশ, আবুল কালাম আজাদ ছোটন, জিয়াউল হক জিয়া, মানস দাশ গুপ্ত, কাউসার আহমদ, কয়সর আহমদ, দেওয়ান মুজাদ্দিদ গাজী, মুজাহিদ ভুইয়া মান্না, এনায়েতুর রহিম, ইকবালুর রহিম, রাজিব দাশ প্রমুখ।






মন্তব্য চালু নেই