মেইন ম্যেনু

বান্ডেল ধরে সব জাল ভোট (ভিডিও)

রাজধানীর সিদ্ধেশ্বরী উচ্চ বালিকা বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোটের বান্ডেল নিয়ে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সমর্থিত এক কাউন্সিলর প্রার্থীর প্রতীকে সিল মারার ঘটনা ঘটেছে।

এই ঘটনার পর ওই ওয়ার্ডের অপর এক কাউন্সিলর প্রার্থী ভোটগ্রহণ স্থগিত করে পুনঃভোটের আবেদন করেছেন।

ওই কেন্দ্রের প্রিজাইডিং কর্মকর্তা শেখ মো. আরিফুল ইসলাম অবৈধভাবে সিল মারার এই ঘটনার কথা স্বীকার করেছেন।

তিনি বলেন, “সকাল থেকে ছিলাম। মাঝে একটু ঝামেলা হইছিল। এখন ঠিক হয়ে গেছে।”

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, “আমি পেয়েছি যে, কিছু ব্যালটে সিল মারা হয়েছে। আমি আমার ঊর্ধ্বতনদের এ বিষয়ে জানিয়েছি।”

ওই কেন্দ্র থেকে বিএনপি সমর্থিত মেয়র প্রার্থী মির্জা আব্বাসের এজেন্টদের বের করে দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন তার স্ত্রী আফরোজা আব্বাস।

আফরোজা বলেন, “ব্যাপক কারচুপি হচ্ছে। আমি বিভিন্ন কেন্দ্রে গিয়েছি। একই অবস্থা দেখছি। সরকারি দলের লোকজন কেন্দ্রের দখল নিয়ে তাদের প্রার্থীকে ভোট দিচ্ছে।”

সিদ্ধেশ্বরী উচ্চ বালিকা বিদ্যালয় কেন্দ্রের ভোটার দুই কাউন্সিলর প্রার্থীকে দেখিয়ে আফরোজা বলেন, “এই দুইজন কাউন্সিলর প্রার্থী আছেন, তারা নিজের ভোট নিজে দিতে পারেন নাই। প্রত্যেকটা কেন্দ্রেই তারা এ রকম করছে।”

এই কেন্দ্রে ভোট কারচুপির অভিযোগ করেছেন সংরক্ষিত আসনের প্রার্থী শম্পা বসুও। পাশের লুৎফা একাডেমি থেকে তার এজেন্টদের বের করে দেওয়া হয়েছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

সিদ্ধেশ্বরী উচ্চ বালিকা বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোট বন্ধের আবেদনকারী কাউন্সিলর প্রার্থী আবু জুবায়ের মো. মিরাতিল্লাহ বলেন, “আমি নিজের ভোটও দিতে পারি নাই।”

তার প্রধান নির্বাচনী এজেন্ট মো. ওয়ালী আল কাদির বলেন, “সকাল সাড়ে ৭টার দিকে প্রিজাইডিং কর্মকর্তাকে জিম্মি করে সরকার দলীয় কাউন্সিলর প্রার্থীর কর্মীরা তাদের প্রতীকে সিল মারতে থাকে।”

ওই কাউন্সিলর প্রার্থী একটি ভিডিওচিত্র সরবরাহ করেছেন, যাতে একটি বান্ডলের সব ব্যালট পেপারে একই মার্কায় (ঘুড়ি) সিল মারা দেখা গেছে।

সূত্র : বিডিনিউজ২৪






মন্তব্য চালু নেই