মেইন ম্যেনু

পীর সাহেব চরমোনাই সমর্থিত মেয়র প্রার্থীর পক্ষে স্মরণকালের বৃহত্তর গণসংযোগ

ঢাকা দক্ষিণ সিটির মেয়র প্রার্থী আলহাজ্ব আব্দুর রহমানের ফ্লাক্স প্রতিকের পক্ষে স্মরণকালের বৃহত্তর গণসংযোগ কর্মসূচি পালন করা হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন ইসলামী আন্দোলনের নায়েবে আমীর মুফতী সৈয়দ মোহাম্মদ ফয়জুল করীম (পীরে কামেল চরমোনাই)।

গণসংযোগের কার্যক্রম বায়তুল মোকাররম উত্তর গেইটে থেকে শুরু হয়ে পল্টন মোড়, কাকরাইল মোড়, শান্তিনগর মোড়, রাজারবাগ পুলিশ লাইন মোড়, খিলগাঁও রেলগেইট, তালতলা বাজার, বাসাবো, বিশ্বরোড, মানিকনগর, গোপীবাগ রেলগেইট, আরকে মিশন রোড, অভয়দাস লেন, টিকাটুলি মসজিদ প্রাঙ্গণ, ইত্তেফাক মোড়, মতিঝিল শাপলা চত্তর, পল্টন অফিস চত্ত্বর এসে শেষ হয়।

গণসংযোগের পথসভাসমূহ : বায়তুল মোকাররম উত্তর গেইট, শান্তিনগর মোড়, খিলগাঁও রেলগেইট, মানিকনগর বিশ্ব রোড, ইত্তেফাক মোড়, মতিঝিল শাপলা চত্ত্বর ও পল্টন অফিস চত্ত্বরে পথসভার মাধ্যমে শেষ হয়।

মুফতী সৈয়দ ফয়জুল করীম বলেন, ঢাকা আজ বসবাসের অযোগ্য নগরীতে পরিণত হয়েছে। বিশ্বের সিটিসমূহের মধ্যে ঢাকা সিটি বিপদজনক শহর হিসেবে স্বীকৃত। গণভবন দুর্নীতির আখড়ায় পরিণত হয়েছে। মানুষ এখনো খোলা আকাশের নিচে, বস্তিতে, ঝুপড়িতে অত্যন্ত মানবেতর জীবন যাপন করছে। অন্যদিকে একশ্রেণির মানুষ অত্যন্ত আয়েশী জীবন যাপন করছে। এধরণের বৈষম্য মেনে নেয়া যায় না। এই বৈষম্য দূর করতে চাইলে নগর পিতা হিসেবে একজন আল্লাহওয়ালা, সৎ ও যোগ্য লোককে ভোট দিয়ে বিজয়ী করতে হবে।

এসময় মেয়র প্রার্থী আলহাজ্ব আব্দুর রহমান ও নায়েবে আমীর মুফতী সৈয়দ মোঃ ফয়জুল করীম একটি খোলা জীপে ছিলেন। গণসংযোগে উপস্থিত ছিলেন মহাসচিব অধ্যক্ষ মাওলানা ইউনুছ আহমদ, অধ্যাপক আশরাফ আলী আকন, অধ্যাপক এটিএম হেমায়েত উদ্দিন, যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা গাজী আতাউর রহমান, মাওলানা ইমতিয়াজ আলম, মাওলানা আতাউর রহমান আরেফী, আলহাজ্ব আলতাফ হোসেন, মাওলানা আহমদ আবদুল কাইয়ূম, মুফতী কেফায়েতুল্লাহ কাশফী, এবিএম জাকারিয়াসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

গণসংযোগকালে সাধারণ মানুষের মাঝে বিশাল সাড়া পড়ে। মেয়র প্রার্থী আলহাজ্ব আবদুর রহমানের মতো দ্বীনদার, সৎ ও আল্লাহভীরু মেয়র প্রার্র্থীকে পেয়ে আবেগআপ্লুত হয়ে পড়েন। তারা বলেন, আল্লাহভীরু নেতৃত্ব না থাকায় মানুষ আজ চরমভাবে অবজ্ঞার শিকার হচ্ছে। মেয়র প্রার্থী আলহাজ্ব আব্দুর রহমান বলেন, আমি ২৯ দফা নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণা করেছি। আমি বিজয়ী হলে যে কোনো মূল্যে এই ইশতেহার বাস্তবায়ণ করবো, ইনশাআল্লাহ।






মন্তব্য চালু নেই