মেইন ম্যেনু

কবরের ভেতরে দ্বিতীয়বার মৃত্যু

সম্প্রতি একদল পর্যটক গিয়েছিলেন গ্রিসের এক প্রাচীন কবরস্থান পরিদর্শনে। ঘুরতে ঘুরতে একটি কবরের সামনে আসতেই তারা শুনতে পান নারীকণ্ঠের আর্তনাদ। ঘাবরে গেলেন পর্যটকরা, এমনকি কবরস্থানের কর্মচারীরাও ঘাবরে গেলেন। ঘটনার অনুসন্ধান করতে গিয়ে বের হয়ে আসলো অদ্ভুত এক ব্যাপার।

পুলিশের মতে, কয়েকজন পর্যটক নিয়ে পেরাইয়া শহরের কবরস্থানের কর্মচারীরা ঘুরছিলেন। এমন সময় তারা একটি সদ্য দেয়া কবর থেকে নারী কণ্ঠের আর্তনাদ শুনতে পান। ওই কবরে ৪৯ বছর বয়সী এক ক্যান্সার আক্রান্ত রোগিকে কবর দেয়া হয়েছিল।

কবরস্থানের কর্মচারীরা নারী কণ্ঠের আর্তনাদ শুনতে পেয়ে সঙ্গে সঙ্গে পুলিশকে খবর দেন। পুলিশ এসে কবর খুড়ে নারীটিকে বের করতে গিয়ে দেখেন নারীটি বাতাসের অভাবে নিঃশ্বাস বন্ধ হয়ে মারা গেছেন। এসময় একজন ডাক্তারকে ডাকা হয়, কিন্তু ততক্ষণে কবরের ভেতরের নারীটির ভবলীলা সাঙ্গ হয়ে গেছে।

ডাক্তার ক্রিস্সি বলেন, ‘এটা এক কথায় অবিশ্বাস্য। আমরা এই নারীটির মৃত্যু নিশ্চিত হওয়ার জন্য কয়েকটি পরীক্ষা করেছিলাম। মৃত্যু নিশ্চিত হওয়ার পরেই তার ডেথ সার্টিফিকেট দেয়া হয়েছিল। কিন্তু তারপরেও কিভাবে কবরের ভেতর থেকে তিনি আর্তনাদ করলেন এটা বোধগম্য হচ্ছে না।’

উল্লেখ্য, গত বছরের নভেম্বর মাসে ব্রাজিলে ঠিক এমনই একটি ঘটনা ঘটেছিল। সেখানেও কবরস্থানের ভেতর থেকে আর্তনাদ করে উঠেছিল এক নারী।






মন্তব্য চালু নেই