মেইন ম্যেনু

এ কেমন যুবক ॥ একাই ১ হাজার মেয়েকে…..

ইভটিজিংয়ের ঘটনা সব জায়গাতেই ঘটলেও এবার ম্যানচেস্টার ইউনিভার্সিটিতে ঘটেছে খুব বাজে ভাবে। বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের বাহিরে দাঁড়িয়ে এক ব্যক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রীদের যাকেই পাচ্ছেন জিজ্ঞাসা করছেন “আমি কী আপনার ব্যবহৃত ন্যাপকিনটি চুষতে পারি?” খবরটি জানিয়েছে দ্য মিরর। ঘটনাটি ইতোমধ্যে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে আলোড়ন সৃষ্টি করেছে।

অদ্ভুত এই লোকটি ক্যাম্পাসের বাহিরে রাস্তায় দাঁড়িয়ে চিৎকার করে বলছেন “ ক্ষমা করবেন, আপনার কি কোন ব্যবহৃত ন্যাপকিন আছে? আমি সেটি চুষতাম।”

বুধবার ম্যানচেস্টার বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী হ্যানাহ সকাল ৯ টার দিকে শহরের পথ ধরে হেঁটে যাচ্ছিলেন। হটাৎ তার সাথে ঘটে এ ঘটনা। তিনি বলেন, প্রথমে আমি খুব আতকে উঠেছিলাম, এরপর ভাবলাম লোকটি পাগল কিনা? আমার প্রথম প্রতিক্রিয়ায় আমি চিৎকার করে ‘না’ বলি এবং এরপর আমি দ্রুত সাইকেল চালিয়ে সেই স্থান ত্যাগ করি। তার বর্ণনা অনুযায়ী লোকটি দাঁড়িওয়ালা মধ্য বয়স্ক এবং তার চুল ছিল ধুসর।

লোকটি এরপর প্লাট ফিল্ড পার্কের কাছাকাছি দাঁড়িয়ে তার পাগলামী শুরু করে। সেখানে তার বক্তব্য অবশ্য ছোট ছিল। তিনি সেখানে দাঁড়িয়ে বলতে থাকেন, ‘আমি কী আপনার ন্যাপকিনটি চুষতে পারি।’

হেটি নামের আরেক শিক্ষার্থী বলেন, সকাল সাড়ে দশটার দিকে আমি এ ঘটনার সম্মুখীন হই। বিষয়টি খুবই ভয়ংকর ছিল এবং লোকটি সম্পূর্ণ উন্মাদ ছিল। আমি তাকে ধন্যবাদ জানিয়ে দ্রুতই রাস্তা ত্যাগ করে চলে আসি।






মন্তব্য চালু নেই