মেইন ম্যেনু

একরাম হত্যা মামলায় মিনার ফের গ্রেপ্তার

ফেনীর ফুলগাজী উপজেলা চেয়ারম্যান একরামুল হক হত্যা মামলায় বিএনপি নেতা মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী মিনারকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।
শনিবার সন্ধ্যায় রাজধানীর বারডেম কার্ডিয়াক হাসপাতাল থেকে আদাবর থানা পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে। আদাবর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রুহুল আমিন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
তিনি বলেন, ‘মাহতাব উদ্দিন মিনার এর আগে গ্রেপ্তারের পর আদালতের অনুমতিক্রমে বারডেম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। পুলিশ পাহারায় দীর্ঘদিন হাসপাতালে ভর্তি থাকার পর ফেনীর আদালত থেকে শনিবার তাকে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা আসে। পরোয়ানা পেয়ে সন্ধ্যায় তাকে হাসপাতাল থেকে গ্রেপ্তার করে নিয়ে আসা হয়।’
আজ তাকে নিম্ন আদালতে হাজির করা হবে বলেও জানান তিনি।
এদিকে বারডেম হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, মাহতাব উদ্দিন মিনার আদালতে অনুমতি নিয়েই বারডেম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। পরে গতকাল সন্ধ্যার দিকে তাকে গ্রেপ্তার করে নিয়ে যায় পুলিশ।
এর আগে ১৫ জুলাই হাইকোর্ট থেকে জামিনে মুক্তি পান মিনার চৌধুরী। তার জামিনের আদেশ আদালত হয়ে ফেনী কারাগারে পৌঁছলে তাকে গত ১৭ জুলাই মুক্তি দেয়া হয়।
উল্লেখ্য, গত ২০ মে ফেনী থেকে ফুলগাজী যাওয়ার সময় ফেনী শহরের একাডেমি এলাকায় একরামুল হককে নিজ গাড়িতে গুলি করে ও পুড়িয়ে হত্যা করে সন্ত্রাসীরা। এ ঘটনায় ওইদিন রাতেই নিহত একরামের বড় ভাই রেজাউল হক জসিম বাদী হয়ে বিএনপির নেতা মিনার চৌধুরীর নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা ৩০ থেকে ৩৫ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন।
গত ২৭ মে মিনারকে ঢাকার কচুক্ষেত এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। পরদিন ভোরে তাকে ঢাকা থেকে ফেনীতে নেয়া হয়।
বিগত উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান একরামুল হকের প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন মিনার চৌধুরী। তিনি ঢাকায় গার্মেন্টস ব্যবসা করেন। গ্রেপ্তার হওয়ার পর অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি। মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী মিনার জেলা তাঁতিদলের আহ্বায়ক। তার বাড়ি ফুলগাজী উপজেলার আনন্দপুর ইউনিয়নে।






মন্তব্য চালু নেই