মেইন ম্যেনু

আদিবাসী তরুণী ধর্ষণের ঘটনায় গ্রেফতার ১

আদিবাসী তরুণীকে ধর্ষণের ঘটনায় একজন গ্রেফতার হয়েছে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির রবিবারের বৈঠক শেষে এর সভাপতি টিপু মুন্সি সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

জাতীয় সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত ওই বৈঠক শেষে টিপু মুন্সি বলেন, গ্রেফতার হওয়া ব্যক্তিকে জিজ্ঞাসাবাদ করলেই প্রকৃত তথ্য বেরিয়ে আসবে। এ জন্য দ্রুত ব্যবস্থা নিতে সংশ্লিষ্টদের বলা হয়েছে।

রাজধানীর কুড়িল বিশ্বরোড এলাকায় চলন্ত মাইক্রোবাসে গণধর্ষণের শিকার হন গারো তরুণী। ২৩ মে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ানস্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) ভর্তি করা হয় চিকিৎসা ও ডিএনএ টেস্টের জন্য।

ওসিসির সমন্বয়ক ডা. বিলকিস বেগম বলেন, গারো ওই তরুণীর চিকিৎসা সেবা ও ডিএনএ টেস্টের জন্য ওসিসিতে ভর্তি করা হয়েছে। এর আগে, শনিবার সকালে ওই তরুণীর স্বাস্থ্য পরীক্ষায় গণধর্ষণের আলামত পাওয়া যায়।

স্বাস্থ্য পরীক্ষা শেষে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের ফরেনসিক মেডিসিনের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ডা. মো. হাবিবুজ্জামান চৌধুরী বলেন, ‘মেয়েটির স্বাস্থ্য পরীক্ষা শেষ হয়েছে। প্রাথমিকভাবে ধর্ষণের আলামত পাওয়া গেছে। এক সপ্তাহের মধ্যে চূড়ান্ত রিপোর্ট দেওয়া হবে।’

তেজগাঁওয়ের ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টারের সিনিয়র সহকারী কমিশনার লাকী আক্তার বলেন, ২৩ মে সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ওই তরুণীর ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য ঢামেক হাসপাতালে পাঠানো হয়। পরীক্ষার রিপোর্ট হাতে পেলে তদন্তকারী কর্মকর্তা আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আদিবাসী ওই তরুণীকে শুক্রবার রাত ১২টার দিকে ভাটারা থানা থেকে ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টারে পাঠানো হয়। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও ভাটারা থানার পরিদর্শক (ওসি, তদন্ত) মো. সাজ্জাদ হোসেন বলেন, ‘ধর্ষণের শিকার হওয়া ওই তরুণীকে শুক্রবার রাতেই ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টারে পাঠানো হয়েছে।’

অজ্ঞাতপরিচয় পাঁচ যুবক ২১ মে রাতে ওই তরুণীকে কুড়িল বিশ্বরোড এলাকার রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে চলন্ত মাইক্রোবাসে গণধর্ষণ করে। পরের দিন শুক্রবার ওই তরুণী অজ্ঞাত পাঁচজনকে আসামি করে ভাটারা থানায় একটি মামলা করেন।

থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) তাপস কুমার ওঝা বলেন, ‘ওই তরুণী যমুনা ফিউচার পার্কের একটি শপিংমলে চাকরি করেন। ডিউটি শেষে বাসায় ফেরার জন্য বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে কুড়িল বিশ্বরোড রাস্তায় বাসের জন্য অপেক্ষা করছিলেন। এ সময় পাঁচ যুবক তার মুখ চেপে ধরে জোর করে মাইক্রোবাসে তুলে নেয়। পরে তারা গাড়িতেই ওই তরুণীকে গণধর্ষণ করে রাত সাড়ে ১০টার দিকে উত্তরার জসীম উদদীন রোডের মাথায় ফেলে রেখে পালিয়ে যায়।’






মন্তব্য চালু নেই