মেইন ম্যেনু

আতিয়া মহলের বাইরে বিস্ফোরণ জঙ্গিদের কাজ : পুলিশ

সিলেটের শিববাড়িতে ‘জঙ্গি আস্তানা’ আতিয়া মহলের পাশে দুটি বোমা বিস্ফোরণের ঘটনা জঙ্গিদের কাজ বলে জানিয়েছে পুলিশ। গতকাল রোববার সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের (এসএমপি) অতিরিক্ত কমিশনার মো. রুকন উদ্দিন আহমদ এ কথা বলেন।

সেনা অভিযানের ৫০০ গজের ভেতরে এ দুটি হামলার ঘটনা ঘটলেও এসব হামলার বিষয় তাঁদের নয় বলে জানিয়েছেন অপারেশন টোয়াইলাইটের মুখপাত্র ব্রিগেডিয়ার মো. ফখরুল আহসান। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী বাইরের দুটি বোমা বিস্ফোরণস্থল ক্রাইম সিন দিয়ে ঘিরে রেখে সেখান থেকে আলামত উদ্ধার নিয়ে দিনভর ব্যস্ত সময় পার করেছে।

বোমা বিস্ফোরণস্থল সিলেট-তামাবিল সড়কের শিববাড়ি এলাকায় গোটা রাস্তা বন্ধ করে রেখেছে অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)। রোববার কয়েক দফা সেখান থেকে পুলিশ ও র‌্যাবের বোমা বিশেষজ্ঞ দল আলামত সংগ্রহ করেছে। এসব কার্যক্রম পরিদর্শন করেন এসএমপির অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার মো. রুকন উদ্দিন আহমদ। তিনি জানান, এ বোমা হামলাটি নিশ্চিত জঙ্গিদের কাজ। তবে কে বা কারা করেছে এবং হামলাকারী হতাহত হয়েছে কি না, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

এ দুটি বোমা হামলায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর গাফিলতি ছিল কি না—জানতে চাইলে অতিরিক্ত কমিশনার জানান, আসলে কয়েক হাজার উৎসুক জনতার কারণে মূলত এ বিস্ফোরণ ঘটায় জঙ্গিরা।

এর আগে অভিযান নিয়ে ব্রিফিংয়ে এক প্রশ্নের জবাবে অপারেশন টোয়াইলাইটের মুখপাত্র ব্রিগেডিয়ার মো. ফখরুল আহসান সাংবাদিকদের জানান, আতিয়া মহলের জঙ্গি ধরতে সেনাবাহিনীকে নিযুক্ত করা হয়েছে। এর বাইরের বিষয় নিয়ে তারা কাজ করছেন না। এটা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পর্যবেক্ষণের বিষয়।

এ বোমা হামলার পর রোববার সকাল থেকে শিববাড়ি ও আশপাশের চার বর্গকিলোমিটার এলাকায় ১৪৪ ধারা বলবৎ রেখেছে পুলিশ। কোনো উৎসুক জনতাকে এই এলাকায় সমবেত হতে দিচ্ছে না তারা।

গতকাল আতিয়া মহলের পাশে বোমা বিস্ফোরণে দুই পুলিশ সদস্যসহ ছয়জন নিহত হন। এ ছাড়া আতিয়া মহলে সেনাবাহিনীর অভিযানে দুই জঙ্গি নিহত হয় বলে জানানো হয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই