মেইন ম্যেনু

আইপিএল স্পট ফিক্সিং: দাউদের সম্পত্তি বাজেয়াপ্তর প্রক্রিয়া শুরুর নির্দেশ

দিলীপ মজুমদার (কলকাতা): আইপিএল স্পট ফিক্সিংকাণ্ডে অভিযুক্ত আন্ডারওয়ার্ল্ড ডন দাউদ ইব্রাহিম, তার সঙ্গী ছোটা শাকিল ও আরও তিনজনের সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করার প্রক্রিয়া শুরুর করার নির্দেশ দিল দিল্লির এক আদালত৷ সরকারি আইনজীবী রাজীব মোহন জানিয়েছেন, দেশজুড়ে দাউদের যাবতীয় সম্পত্তি চিহ্নিত করে তার তালিকা আদালতের কাছে পেশ করবে দিল্লি পুলিশ৷ দাউদ ও বাকিরা সকলেই আইপিএল স্পট ফিক্সিংকাণ্ডে অভিযুক্ত৷ দিল্লি পুলিশের চার্জশিটেও নাম রয়েছে৷ প্রত্যেকেই ফেরার৷ ভারতে তাদের সর্বশেষ ঠিকানায় তারা কেউ থাকে না, তাই তাদের বিরুদ্ধে জারি হওয়া জামিন অযোগ্য গ্রেফতারি পরোয়ানা কার্যকর হয়নি বলে দিল্লি পুলিশের স্পেশাল সেলের তরফে আদালতকে জানানো হয়। এর পরিপ্রেক্ষিতেই আদালত নির্দেশ দেয় দাউদ ও বাকিদের সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করার প্রক্রিয়া শুরু করার।অতিরিক্ক সেসন জজ ভরত পরাশর বলেন, দাউদ, শাকিল, চুটানি, সলমন, এহতেসামের বিরুদ্ধে রুজু হওয়া জামিন অযোগ্য গ্রেফতারি পরোয়ানা ফেরত এসেছে কেননা এদেশে ওদের যে শেষ ঠিকানার কথা আমাদের জানা, সেখানে ওরা আর থাকে না। তাই ওদের বিরুদ্ধে ভারতীয় দন্ডবিধির ৮২ (পলাতক বলে কোনও ব্যক্তিকে ঘোষণা করা) ও ৮৩ অনুচ্ছেদের (পলাতক ঘোষিত ব্যক্তিদের সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করা) আওতায় প্রক্রিয়া শুরুর আবেদন এসেছে।এই পরিস্থিতিতে ওদের বিরুদ্ধে ওই দুই ধারা বলে ব্যবস্থা নেওয়া শুরু হোক। শনিবার আদালত পুলিশকে নির্দেশ দেয়, শেষ যে যে ঠিকানায় অভিযুক্তরা থাকতেন
বলে তাদের কাছে খবর রয়েছে, সেইসব বাড়িতে গিয়ে সম্পত্তি বাজেয়াপ্ করার নোটিস টাঙিয়ে দিতে৷ দেশজুড়ে প্রচারিত হয় এমন সংবাদপত্রেও তা ছাপতে হবে৷ ১৬ অগাস্ট ফের শুনানি৷ তার মধ্যে এবিষয়ে পুলিশকে রিপোর্টজমা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে আদালত৷ সরকারি আইনজীবী জানিয়েছেন, দেশজুড়ে দাউদের যাবতীয় সম্পত্তি চিহ্নিত করে তার তালিকা আদালতের কাছে পেশ করবে দিল্লি পুলিশ৷






মন্তব্য চালু নেই