মেইন ম্যেনু

বিশ্বের সবচেয়ে ধনী সন্ত্রাসী সংগঠন আইএস

কালোবাজারে তেল বিক্রি থেকে এক মাসে জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেটের (আইএস) আয় এক কোটি মার্কিন ডলার। সম্প্রতি প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে জানা যায়, বিশ্বের সবচেয়ে ধনী সন্ত্রাসী সংগঠন আইএস।চলতি বছরে ইরাক এবং সিরিয়াতে দখলকৃত অপরিশোধিত তেলের খনি থেকে আইএসের দৈনিক আয় ১০ লাখ ডলার। সন্ত্রাসবাদ এবং আর্থিক বিষয়ক ট্রেজারি আন্ডারসেক্রেটারি ডেভিড কোচেন এ তথ্য জানায়।

বিভিন্ন উৎস থেকে আয়ের সুবাদে জঙ্গি সংগঠন আইএসের তহবিল বাড়ছে দুর্দান্ত গতিতে। যুক্তরাষ্ট্র এবং এর অন্যান্য মিত্র দেশগুলোর জন্যে এই তহবিলের উৎস বন্ধ করা কঠিন চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছে।

কোচেন আরও বলেন, ‘আমাদের কাছে লক্ষ্য ভেদ করে না এমন কোনো আগ্নোয়াস্ত্র নেই, যাতে রাতারাতি আইএসের তহবিল শূণ্য করা সম্ভব। এটি চলমান প্রক্রিয়া, এজন্যে যুদ্ধ চালিয়ে যেতে হবে এবং আমরা এই যুদ্ধের প্রাথমিক পর্যায়ে রয়েছি।’

ওবামা প্রশাসনের নেতৃত্বাধীন যে দলটি আইএস নির্মূলে কাজ করে যাচ্ছে কোচের সেই দলের একজন সদস্য।

কার্নিজ ইন্ডোমেন্ট ফর ইন্টারন্যাশনাল পিসের ভাইস প্রেসিডেন্ট মারওয়ান মুসহার বলেন, ‘আইএস বর্তমানে বিশ্বের সবচেয়ে ধনী সন্ত্রাসী সংগঠন।’

তবে আল কায়দার মতো পারস্য উপসাগরীয় অঞ্চলের ধনী অনুদান দাতাদের ওপর নির্ভরশীল নয় আইএস।

কোচনের মতে, ‘আইএসের আয়ের উৎস অনেক গভীর এবং বহুমুখী। অনেক দেশেই অনেক সন্ত্রাসী সংগঠন রয়েছে। তবে আমাদের দেখা সন্ত্রাসী সংগঠনগুলোর মধ্যে আইএসের তহবিল সবচেয়ে বেশি মজবুত।’

শুধুমাত্র আইএসের দখলকৃত তেল খনিগুলো থেকে এরা দৈনিক ৫০ হাজার ব্যারেল তেল উৎপাদন করে। উৎপাদিত অপরিশোধিত তেল কম মূল্যে মধ্যস্থাতাকারীদের কাছে বিক্রি করে। বিশেষ করে তুরস্কের মধ্যস্থাতাকারীরা এই তেল কিনে নেয়। এরপর সেগুলো পুনরায় বিক্রি করে। তুরস্ক ছাড়াও ইরাক ও কুর্দের অনেক ব্যবসায়ী এই তেল কিনে পুনরায় তুরস্কের ক্রেতাদের কাছে বিক্রি করে। এই এলাকার তেল ব্যবসায়ীদের সঙ্গে কালো বাজারিদের যোগসাজোগ রয়েছে।

তেল বিক্রি ছাড়াও অপহরণ বাণিজ্য থেকে চলতি বছরে আইএস যোদ্ধারা দুই কোটি মার্কিন ডলার আয় করে। –






মন্তব্য চালু নেই