মেইন ম্যেনু

২০১৫ সালে থাইল্যান্ডে নির্বাচন

২০১৫ সালের অক্টোবরের পর থাইল্যান্ডে নির্বাচন দেয়ার ঘোষণা দিয়েছে দেশটির সামরিক সরকার। সেনাশাসক প্রেউথ চান ওচা তার বক্তব্যে নির্বাচনের বিষয়ে মানুষকে আশ্বস্ত করেন। তিনি আরো জানান, জুলাই মাস থেকে দেশটিতে একটি অন্তর্বর্তীকালীন সংবিধান জারি করা হবে।

আগামী নির্বাচনের মাধ্যমে নতুন সরকার না আসা পর্যন্ত একটি অস্থায়ী মন্ত্রীসভা দেশ চালাবে বলে জানান ওচা। গত ২২ মে রাজনৈতিক অস্থিরতার সুযোগে দেশটির ক্ষমতা দখল করে সেনাবাহিনী। তখন থেকেই ন্যাশনাল কাউন্সিল ফর পিস অ্যান্ড অর্ডার (এনসিপএ) নামের একটি সামরিক জান্তার মাধ্যমে দেশটি চালাচ্ছে সেনাবাহিনী। ওচার নেতৃত্বতে ক্ষমতা দখলের পরই দেশটির সংবিধান স্থগিত করা হয়।

ওচার তার বক্তব্যে তুলে ধরার চেষ্টা করেন, বর্তমান পরিস্থিতিতে দেশটিতে নির্বাচন সম্ভব হয়। নির্বাচন হলেই সংঘাতময় পরিস্থিতির উদ্ভব হবে। নতুন করে সংবিধান প্রণয়নের মাধ্যমেই কেবল শান্তিপূর্ণ নির্বাচন সম্ভব। আগামী মাস থেকেই তার অন্তর্বর্তীকালীন মন্ত্রীসভার অধীনে নতুন সংবিধান প্রণয়নের কাজ শুরু হবে।






মন্তব্য চালু নেই