মেইন ম্যেনু

হামলার হুমকি এড়াতে সীমান্ত বন্ধের পরিকল্পনা ভারতের

জঙ্গি হামলার হুমকি মোকাবেলায় বাংলাদেশ ও পাকিস্তান সংলগ্ন সীমান্ত বন্ধ করার পরিকল্পনা করছে ভারত। দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং রোববার সীমান্তের নিরাপত্তা জোরদারে নতুন পরিকল্পনার আভাস দিয়েছেন। রাজনাথের বক্তব্যের বরাত দিয়ে ইন্ডিয়া টুডে জানায়, সীমান্তে নিরাপত্তা জোরদারে যে নতুন রোডম্যাপ তৈরি হচ্ছে তাতে বাংলাদেশ ও পাকিস্তানের সীমান্ত বন্ধের প্রসঙ্গটি রয়েছে।

ইন্ডিয়া টুডে জানায়, রোববার গোয়ালিয়রের তেকানপুরে বিএসএফ একাডেমিতে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে তিনি এই পরিকল্পনার কথা জানান। সহকারী কমান্ডেন্টদের পাসিং আউট প্যারেড অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেওয়ার সময় রাজনাথ সীমান্তে নিরাপত্তা কঠোর করার ওপরও জোর দেন।

রাজনাথ সিং বলেন, ‘সীমান্তের নিরাপত্তা জোরদার করতে কেন্দ্রীয় সরকার নতুন রোডম্যাপ তৈরি করেছে। যেখানে বাংলাদেশ ও পাকিস্তানের সঙ্গে আন্তর্জাতিক সীমান্ত এলাকা বন্ধের পরিকল্পনা রয়েছে।’

ভারতের ৫টি রাজ্যের সঙ্গে বাংলাদেশের সীমান্ত রয়েছে। যার আয়তন মোট ৪ হাজার ৯৬ কিলোমিটার। এরমধ্যে পশ্চিমবঙ্গের সঙ্গে ২ হাজার ২১৬ কিলোমিটার, ত্রিপুরার সঙ্গে ৮৫৬ কিলোমিটার, মেঘালয়ের সঙ্গে ৪৪৩ কিলোমিটার, মিজোরামের সঙ্গে ৩১৮ কিলোমিটার এবং আসামের সঙ্গে ২৬৩ কিলোমিটার রয়েছে। এর বেশিরভাগ জায়গাতেই কাঁটাতারের বেড়া স্থাপন করেছে ভারত।

আর পাকিস্তানের সঙ্গে ভারতের ১ হাজার কিলোমিটার সীমান্ত রয়েছে। অবশ্য গত অক্টোবরে মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে বৈঠকে রাজনাথ সিং আগামী বছরের মধ্যে পাকিস্তান সংলগ্ন সীমান্ত বন্ধের পরিকল্পনার কথা জানান।

এদিকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বক্তব্যকে উদ্ধৃত করে পরে বিএসএফের পক্ষ থেকেও বিবৃতি প্রকাশ করা হয়। যেখানে বলা হয়, সম্প্রতি বিএসএফ ৭৩টি সীমান্ত চৌকি স্থাপন করেছে। আরও তিনটি চৌকি শিগগিরই স্থাপন করা হবে। জঙ্গি হামলা মোকাবেলায় বিএসএফ সীমান্তে তাদের দায়িত্ব ও নিয়মকানুনে পরিবর্তন এনেছে।

রাজনাথের বক্তব্য উদ্ধৃত করে বিবৃতিতে আরও বলা হয়, সহকারী কমান্ডেন্টদের উদ্দেশে বক্তব্যের সময় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ‘প্রতিরক্ষার প্রথম দেয়াল’ হিসেবে বিএসএফ’এর কথা উল্লেখ করেন।






মন্তব্য চালু নেই