মেইন ম্যেনু

হবিগঞ্জ ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্কে ১৮ হাজার লোকের কর্মসংস্থান

প্রতিষ্ঠার পর থেকে গত তিন বছরে প্রাণ-আরএফএল গ্রুপের হবিগঞ্জ ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্কে ১৮ হাজার লোকের কর্মসংস্থান হয়েছে। বর্তমানে এখানে ৩৭টি উৎপাদন লাইনের মাধ্যমে বিভিন্ন ধরণের পণ্য উৎপাদন হচ্ছে। আগামী বছর নাগাদ আরো আট থেকে ১০টি উৎপাদন লাইন কারখানায় যুক্ত হবে। এতে আরো প্রায় পাঁচ থেকে সাত হাজার লোকের কর্মসংস্থান সৃষ্টি হবে। আগামী ২০১৮ সালে কারখানায় কর্মী সংখ্যা হবে প্রায় ২৫ হাজার।

সোমবার হবিগঞ্জ ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্কে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় এসব তথ্য জানান প্রাণ-আরএফএল গ্রুপের পরিচালক (বিপণন) কামরুজ্জামান কামাল।

তিনি আরো জানান, ২০১৪ সালে হবিগঞ্জ ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্কে উৎপাদন শুরু হয়। এরপর থেকে একে একে নতুন নতুন উৎপাদন লাইন সংযুক্ত হতে থাকে। একই সঙ্গে বাড়তে থাকে কারখানার কর্মী সংখ্যাও। কারখানায় কর্মরত লোকবলের ৮০ ভাগই স্থানীয়। এর মধ্যে ৫৫ ভাগ নারী কর্মী রয়েছেন। কারখানাটি স্থাপনের ফলে এ অঞ্চলের আর্থ-সামাজিক অবস্থার ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে।

হবিগঞ্জ ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্কের জেনারেল ম্যানেজার (জিএম) এইচএম মঞ্জুরুল হক জানান, কর্মসংস্থানের পাশাপাশি শায়েস্তাগঞ্জ এলাকায় উন্নত শিক্ষার সুযোগ সম্প্রসারণে কাজ করছে কোম্পানিটি। আধুনিক সুযোগ-সুবিধাসহ কারখানা সংলগ্নে একটি স্কুল স্থাপন করা হয়েছে। বর্তমানে এ স্কুলে প্রায় ৬০০ শিক্ষার্থী পড়াশোনা করছে। এছাড়া বেশ কিছু স্কুলে মেধাবী ছাত্রছাত্রীদের বৃত্তি প্রদানসহ বিভিন্ন কার্যক্রম পরিচালনা করা হচ্ছে।

এ এলাকার লোকজনের যাতায়াতের সুবিধার জন্য বেশকিছু রাস্তাঘাট নির্মাণ, পয়নিষ্কাশনের ব্যবস্থাসহ বিভিন্ন কার্যক্রম চলছে। যা ভবিষ্যতেও অব্যাহত থাকবে বলেও জানান তিনি।

মতবিনিময় সভায় তথ্য অধিকার আইনসহ সাংবাদিকদের বিভিন্ন সমস্যা, সুবিধা-অসুবিধা নিয়ে বক্তব্য দেন বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি ও একুশে টেলিভিশনের সিইও মঞ্জুরুল আহসান বুলবুল। এ সময় তিনি নিজের জীবনের সাংবাদিকতার বিভিন্ন অভিজ্ঞতা তুলে ধরে স্থানীয় সাংবাদিকদের অনুপ্রেরণা যোগান।

মতবিনিময় সভায় হবিগঞ্জ ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্কের জেনারেল ম্যানেজার (আরএফএল-অ্যাডমিন) ফজলে রাব্বি, সিনিয়র ম্যানেজার (প্রাণ-অ্যাডমিন) এহসানুল হাবিব, প্রাণ-আরএফএল গ্রুপের কমিউনিকেশন ম্যানেজার জিয়াউল হক প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, দেশের শীর্ষস্থানীয় শিল্প প্রতিষ্ঠান প্রাণ-আরএফএল গ্রুপ হবিগঞ্জের অলিপুরে ২১৭ একর এলাকাজুড়ে হবিগঞ্জ ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্ক গড়ে তোলে। কারখানায় বর্তমানে ক্যান্ডি, লিকুইড গ্লুকোজ, বিস্কুট, ফ্রুট ড্রিংক, বেভারেজ, কনফেকশনারি, ইলেকট্রিক ক্যাবলস, ফ্যান, মেলামাইন, বাইসাইকেল, পিভিসি, মল্ডেড প্লাস্টিক, এমএস ও জিআই পাইপ, টেক্সটাইল, টয়লেট্রিজ ও চিকিৎসা সরঞ্জামসহ বিভিন্ন পণ্যসামগ্রী উৎপাদিত হচ্ছে।

প্রাণ-আরএফএল গ্রুপ ১৯৮১ সালে যাত্রা শুরু করে। বর্তমানে প্রতিষ্ঠানটিতে ৮৪ হাজার কর্মী কাজ করছেন। বিশ্বের ১৩৪টি দেশে সুনামের সঙ্গে পণ্য রফতানি করছে প্রতিষ্ঠানটি।






মন্তব্য চালু নেই