মেইন ম্যেনু

সাত বছরের শিশুকে সাতবার গুলি

ভারতের আসামের কোকরাঝড় জেলায় সাত বছর বয়সী এক শিশুকে সাতবার গুলিবিদ্ধ করেছে বোরো বিদ্রোহীদের একাংশ। তদু নামের শিশুটি বর্তমানে আসামের গুয়াহাটি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আছে। ভারতীয় গণমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়া সূত্রে এই খবরের সত্যতা জানা যায়।

গত ২৪ ডিসেম্বর আসামের কোকরাঝড় এবং সোনিতপুর জেলার বেশ কয়েকটি গ্রামে হামলা চালায় বোরো বিদ্রোহীরা। এ হামলায় কমপক্ষে ৭৬জন নিহত ও ১৭জন আহত হয়। নিহতদের মধ্যে ২১জন নারী এবং ১৮জন শিশু।

বোরো বিদ্রোহীদের হামলার সময় তদু তার ঘরের দরজার সামনে দাড়ানো অবস্থায় ছিল। বিদ্রোহীরা গুলি চালানো শুরু করলে সে এবং তার মা দুজনেই ‍গুলিবিদ্ধ হয়। তদুর মুখে, হাতে, কোমড়সহ আরও কয়েক স্থানে গুলি লাগে।

তদুর বাবা সোম তদু জানান, ‘আমার বড় ছেলেও গুলিবিদ্ধ হয়েছিল। তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার সময় মারা যায়। আমার অন্য সন্তানেরা ঘরের ভেতর থাকায় তাদের কিছু হয়নি। আমি নিজে কালু তদুকে নিয়ে হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ছুটে যাই।’

এছাড়াও বোরো বিদ্রোহীদের হামলায় রানি বাসুমাতৃ(৫০) নামের এক নারীও আহত হন। তাকে ধারালো ছুরি দিয়ে উপর্যুপরি আঘাত করা হয়। রানির স্বামী বিশ্বনাথ জানান, ‘চিরং জেলার শান্তিপুর গ্রামে আমাদের বসবাস। আমাদের ঘরবাড়ি সব জ্বালিয়ে দিয়েছে তারা। এখন কিছুই নেই আমাদের।’

আক্রান্ত পাঁচটি স্থানই স্বায়ত্বশাসিত বোরোল্যান্ডের বিচারাধীন এলাকার আওতাভুক্ত। এই অঞ্চলে বসবাসরত পাহাড়িদের অধিকাংশ ছোটনাগপুর প্লাতু ও ভারতের মধ্যাঞ্চল থেকে আগত বলে জানা যায়। দীর্ঘদিন ধরেই এই অঞ্চলের ভূমির দাবি নিয়ে লড়াই করে আসছে বোরো বিদ্রোহীরা।






মন্তব্য চালু নেই