মেইন ম্যেনু

সন্দেহভাজন নাগরিকদের ওপর কঠোর হচ্ছে ব্রিটেন

যেসব নাগরিক ইরাকের ইসলামিক স্টেট (আইএস) জঙ্গিদের হয়ে যুদ্ধ করতে গেছে তাদের পাসপোর্ট বাতিল করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ব্রিটেন। চলতি মাসেই এ সংক্রান্ত সন্ত্রাস বিরোধী একটি বিল পার্লামেন্টে উপস্থাপন করা হবে বলে জানিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরন।

এই বিল পাস হলে এই মুহূর্তে যারা সিরিয়া এবং ইরাকে অবস্থান করছে তারা কমপক্ষে দুই বছর ব্রিটেনে প্রবেশাধিকার পাবে না। অবশ্য কিছু কঠোর নিয়ম মেনে চলার অঙ্গীকার করলে বিশেষ বিবেচনায় অনুমতি দেয়া হতে পারে।

এসব নিয়মের মধ্যে থাকবে: ব্রিটেনে নজরদারির মধ্যে থাকা, বিচারের মুখোমুখি হওয়া, জামিনের শর্তের মতো নিয়মিত রিপোর্ট করা এবং সন্ত্রাস দমন বিষয়ে কিছু কোর্স করা।

এছাড়া সীমান্তরক্ষী এবং বিমানবন্দর পুলিশকে একটি ‘অস্বাভাবিক’ ক্ষমতা দেয়ার কথাও বিলে বলা হয়েছে। সে ক্ষমতাবলে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে যোগ দেয়ার উদ্দেশ্যে কেউ দেশের বাইরে যাওয়ার পরিকল্পনা করছে এমন সন্দেহ হলে যে কোনো নাগরিকের পাসপোর্ট জব্দ করতে পারবে তারা।

222সন্ত্রাসী গ্রুপের সঙ্গে যোগ দেয়ার জন্য মধ্যপ্রাচ্যে যেতে চায় এমন ১৮ বছরের কম বয়সী ব্রিটিশের জন্যও এ ক্ষমতা প্রয়োগ করা যাবে।

ক্যামেরন ক্যানবেরায় অস্ট্রেলিয়ার পার্লামেন্টে বক্তৃতা দেয়ার সময় এই ঘোষণা দেন। আগামী জানুয়ারিতেই বিলটি আইনে পরিণত করার পরিকল্পনা রয়েছে তার।

উল্লেখ্য, কমপক্ষে ৫০০ ব্রিটিশ নাগরিক আইএসের সঙ্গে জিহাদে যোগ দিয়েছে- গত সেপ্টেম্বরে এমন তথ্য উপস্থাপন করে পার্লামেন্টে উদ্বেগ প্রকাশ করেন ক্যামেরন। এর পরিপ্রেক্ষিতেই কঠোর আইন করার পদক্ষেপ নিয়েছে তার সরকার।






মন্তব্য চালু নেই