মেইন ম্যেনু

বর্ধমান বিস্ফোরণ :

শিগগিরই বৈঠকে বসবে র‌্যাব-এনআইএ

বর্ধমান বিস্ফোরণ জামাআ’তুল মুজাহিদিন বাংলাদেশের (জেএমবি) তৎপরতা সম্পর্কে তথ্য বিনিময় করতে শিগগিরই বসতে পারে বাংলাদেশের র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) ও ভারতের জাতীয় তদন্ত সংস্থা (এনআইএ)।

বৃহস্পতিবার টাইমস অব ইন্ডিয়ার অনলাইন সংস্করণে এ খবর প্রকাশ করা হয়।

এটা হবে বর্ধমান বিস্ফোরণ ও জেএমবির কর্মকাণ্ড নিয়ে দুদেশের রাষ্ট্রীয় সংস্থার মধ্যে প্রথম বৈঠক। সীমান্তের বেনাপোল-পেট্রাপোল চেকপোস্টে হতে পারে বৈঠকটি। এখন বৈঠকের বিস্তারিত বিষয় চূড়ান্ত করা হচ্ছে।

উল্লেখ্য, গত ২ অক্টেটাবর বর্ধমানের খাগড়াগড়ে ভয়াবহ বিস্ফোরণ ঘটে। ওই বিস্ফোরণে যারা জেএমবি জড়িত বলে ভারতীয় গোয়েন্দাদের দাবি। এ ঘটনায় জড়িত সাজিদ নামে এক ব্যক্তি বাংলাদেশের নাগরিক মাসুদ রানা ওরফে মাসুম-এমন দাবিও করে আসছেন তারা। এ বিষয়ে সম্প্রতি ভারতের গণমাধ্যমগুলোতে বেশ কিছু প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। এসব প্রতিবেদনে দাবি করা হয়, সাজিদ পশ্চিমবঙ্গে জেএমবির ‘শেষ কথা’ অর্থাৎ শীর্ষ ব্যক্তি তিনি। তার বাড়ি নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলার ফারাজীকান্দা গ্রামে।

এদিকে ফারাজীকান্দা থেকে গত সোমবার নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলার ফরাজীকান্দা বাজারের একটি ওয়েল্ডিংয়ের দোকান থেকে মনোয়ার হোসেন মনা নামে এক ব্যক্তিকে আটক করে র‌্যাব। এরপর গতকাল বুধবার তাকে দুদিনের রিমান্ডে নেয় পুলিশ। মনা সাজিদের বড়ভাই বলে ভারতীয় গোয়েন্দাদের দাবি। এ বিষয়ে আনন্দবাজারে প্রতিবেদন প্রকাশ হওয়ার পরই তাকে আটক করা হয়। তবে সাজিদ মনার ভাই মাসুম কি না তা এখনো নিশ্চিত হতে পারেনি পুলিশ। আননন্দবাজার বলছে, নারায়ণগঞ্জের পুলিশ সুপার খন্দকার মহিদুদ্দিন মনে করেন, সাজিদই মনার ভাই।



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই