মেইন ম্যেনু

যশোরের খবর (১৮/০৬/১৪)

আবিদুর রেজা খাঁন, যশোর :
## যশোরে সংবাদপত্রের কালো দিবস উপলক্ষ্যে জেইউজের সভা অনুষ্ঠিত
যশোর অফিস: সোমবার দুপুরে প্রেসক্লাব যশোর মিলনায়তনে সাংবাদিক ইউনিয়ন যশোর (জেইউজে) এর উদ্যেগে সংবাদপত্রের কালো দিবস উপলক্ষ্যে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।এতে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আবিদুর রেজা খান। অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন সিনিয়র সাংবাদিক ও দৈনিক লোকসমাজ পত্রিকার সিনিয়র সাব এডিটর আব্দুল্লাহ হ্সুাইন, কোষাধ্যক্ষ শহিদুল ইসলাম মিলন, সিনিয়র সাংবাদিক মোস্তফা রুহুল কুদ্দুস, ইউনিয়নের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ সেলিম, নূর ইসলাম, এম আইউব ও বিএম আসাদ। সভা পরিচালনা করেন সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মুর্শিদুল আজিম হিরু।সভায় বক্তারা অবিলম্বে বন্ধ মিডিয়া খুলে দেয়াসহ সাংবাদিকদের উপর দমন নিপিড়ন বন্ধের দাবি জানান।

## যশোরে পিস্তল গুলি উদ্ধার
যশোর অফিস: যশোর র‌্যাব-৬ ক্যাম্পের সদস্যরা শহরের বকচর হুশতলা এলাকা থেকে একটি পিস্তল ও পাচ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করেছে।
মঙ্গলবার বিকেলে যশোর র‌্যাব ক্যাম্পের একটি টিম গোপন ভিত্তিতে শহরের বকচর হুশতলা এলাকায় অভিযান চালায়। এ সময় একটি পিস্তল ও পাচ রাউন্ড গুলি পরিত্যাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করেছে ।

## যশোরে বাংলাদেশ প্রতিদিনের সম্পাদক ও প্রকাশকের বিরুদ্ধে মামলা
যশোর অফিস : মঙ্গলবার যশোরের একটি আদালতে বাংলাদেশ প্রতিদিনের সম্পাদক ও প্রকাশকের বিরুদ্ধে পাঁচটি মামলা হয়েছে। মামলার বাদীরা হচ্ছেন করেছেন শার্শা উপজেলার শার্শা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সোহরাব হোসেন, বাগআঁচড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইলিয়াস কবীর বকুল, গোগা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুর রশিদ, শার্শা উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মেহেদি হাসান ও কায়বা এলাকার হাসান ফিরোজ টিংকু। যশোরের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট প্রণব কুমার অভিযোগগুলো গ্রহণ করেছেন। এ বিষয়ে তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিল করার জন্য যশোরের সিনিয়র তথ্য অফিসারকে নির্দেশ দেন। ১৩ জুলাই মামলার পরবর্তী দিন ধার্য করা হয়েছে।
বাংলাদেশ দণ্ডবিধির ৫০০, ৫০১ ও ১০৯ ধারায় দায়ের করা এ সব মামলায় বাংলাদেশ প্রতিদিনের সম্পাদক নঈম নিজাম ও প্রকাশক ময়নাল হোসেন চৌধুরীকে আসামি করা হয়েছে।পাঁচটি মামলা পৃথকভাবে করা হলেও সবগুলোর বিবরণ মোটামুটি একই। পাঁচজন বাদীই উল্লেখ করেছেন, তারা নিজ এলাকার সম্মানীয় ব্যক্তি এবং নানা সমাজসেবামূলক কর্মকাণ্ডে নিয়োজিত রয়েছেন। প্রকাশিত সংবাদে বাদীদের সম্মান নষ্ট হয়েছে। ফলে তারা আসামিদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানিয়েছেন।১১ জুন বাংলাদেশ প্রতিদিনের শীর্ষ সংবাদ ছিল ‘শার্শার মৃত্যুপুরীতে শেখ আফিলের শাসন’। এই সংবাদে শার্শা এলাকার সরকারদলীয় কয়েক ব্যক্তির বিরুদ্ধে নিজদলের কর্মীদের খুন করার অভিযোগ আনা হয়।

## যশোরে সাজাপ্রাপ্ত আসামী আটক
যশোর অফিস: যশোর কোতয়ালি থানা পুলিশ সাজাপ্রাপ্ত আসামী শাহাদৎ হোসেনকে আটক করেছে। সে যশোর শহরের শংকরপুর চোপদার পাড়ার আব্দুল হকের পুত্র।
সোমবার রাতে যশোর কোতয়ালি থানার এসআই শোয়েব উদ্দিন আহমেদ শহরে চাঁচড়া ডালমিল এলাকায় অভিযান চালায়। এ সময় শাহাদৎ হোসেনকে আটক করে। তার বিরুদ্ধে ঝিনাইদহ আদালতে একটি মামলায় এক বছরের সাজাপ্রাপ্ত হয়। পুলিশ জানায় সে সাজা প্রাপ্ত হওয়ার পর থেকে দীর্ঘদিন ধরে পালিয়ে বেড়াচ্ছিল। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করা হয়েছে।

## যশোরে ইয়াবা ফেনসিডিলসহ পাচ মাদক ব্যবসায়ী আটক
যশোর অফিস: যশোর কোতয়ালি থানা সদর ফাড়ি ও চাঁচড়া ফাঁড়ি পুলিশ পৃথক অভিযান চালায়। এ সময় ইয়াবা ,ফেনসিডিলসহ পাচ মাদক ব্যবকসায়ীকে আটক করেছে। আটককৃতরা হচ্ছে, যশোর শহরের আশ্রম রোডস্থ আব্দুল আলীমের পুত্র আকাশ,শংকরপুর হারানের বস্তির আলী আহম্মেদ ওরফে বাগানের পুত্র আব্দুর রহিম ওরফে ভাজা রহিম,বেজপাড়া মেইন রোডস্থ শওকত আলীর বাড়ির ভাড়াটিয়া মৃত নারায়ন চন্দ্রর রায়ের পুত্র শ্রী শ্যামল কুমার রায়,যশোর সদর উপজেলা শ্যামনগর মধ্য পাড়ার আরশাদ আলীর পুত্র বজলুর রহমান ওরফে বাদল,শহিদুল ইসলামের পুত্র আসাদুল ইসলাম। এ সময় চৌগাছা উপজেলা বড় কাবিল পুর গ্রামের সাত্তার মন্ডলের পুত্র এক্স-রে আলী মন্ডল ও সোনাই মন্ডলের পুত্র শফিকুল ইসলাম মেম্বর পালিয়ে যায়।
সোমবার রাতে যশোর সদর ফাঁড়ির পুলিশ শহরের বেজপাড়া নলডাঙ্গা রোডের সুধীর বাবুর কাঠগোলা এলাকায় অভিযান চালায়। এ সময় শ্যামল কুমার রায়কে আটক করে। তার কাছথেকে ২০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করেছে। অপর দিকে,চাঁচড়া ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই জামাল উদ্দিন ওইদিন বিকেলে শহরের শংকরপুর আশ্রম রোডস্থ এলাকা থেকে আকাশ ও আব্দুর রহিম ওরফে ভাজা রহিমকে ১০০পিস ইয়াবা ট্যাবলেটসহ আটক করে। এছাড়া,যশোর কোতয়ালি থানার সিভিল টিমের এসআই আজগার আলী ও এএসআই রবিউল ইসলাম পলাশসহ একদল পুলিশ রোববার রাত সাড়ে ১১ টায় শহরের ষষ্টিতলা পাখি পট্টি জনৈক সাইফুলের মুদি দোকানের সামনে থেকে বাদল ও আসাদুল ইসলামকে ৫০ বোতল ফেনসিডিলসহ আটক করে। এ ব্যাপারে পৃথক ৩ মামলা দায়ের করা হয়েছে।

## যশোরে এক যুবককে কুপিয়ে ছিনতাই ॥ এক ছিনতাইকারী আটক
যশোর অফিস: যশোর শহরের নীলগঞ্জ সুপারী বাগান মোড় এলাকার একটি মুদির দোকানের সামনে এলোপাতাড়ী কুপিয়েছে ছিনতাইকারীরা। এ সময় তার নগদ টাকা ও মোবাইল ছিনিয়ে নেয়। এ ঘটনায় যশোর নীলগঞ্জ সুপারী বাগান এলাকার হাফিজের বাড়ির ভাড়াটিয়া মৃত কাজী জাফরের স্ত্রী রোজিনা বেগম বাদি কোতয়ালি থানায় ছয় সন্ত্রাসীর নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত ৩/৪জনের বিরুদ্ধে মামলা করেছে। এ ঘটনার সাথে জড়িত একজনকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় আটক করেছে পুলিশ।
বাদির পুত্র রেজোয়ান হোসেন ওরফে মিথুন (৩০) ওই এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসীদের সন্ত্রাসী কার্যকলাপ ও চাঁদাবাজি করেেত নিষেধ করে। এ ঘটনার সুত্র ধরে সন্ত্রাসীরা মিথুনকে হত্যার উদ্দেশ্যে বিভিন্ন ষড়যন্ত্র করতে থাকে। রোববার দুপুরে মিথুন শহর থেকে বাড়ি ফিরছিল। দুপুর আড়াইটার সময় উল্লেখিত স্থানে পৌছালে শহরের আরএনরোডস্থ জোড়াকুটির এলাকার বাবু’র পুত্র ভিকি,সিটি কলেজপাড়া বউ বাজারের ইনসান মোল্যার পুত্র রাসেল,রুবেল,নীলগঞ্জ সাহা পাড়ার জাকির হোসেনের পুত্র রুবেল,সার্কিট,হুশতলা কপোতাক্ষ আবাসিক প্রকল্প এলাকার আলম মামা লালু মিস্ত্রির পুত্র টিপু,বেজপাড়া ছাদের দারোগার মোড়ের জাফরের পুত্র সবুজসহ অজ্ঞাতনামা আরো ৩/৪জন মোটর সাইকেল যোগে এসে গতিরোধ করে। হত্যার উদ্দেশ্যে এলোপাতাড়ী কুপিয়ে পকেটে থাকা নগদ ৮ হাজার টাকা ও ৬ হাজার টাকা মূল্যের মোবাইল ফোন ছিনিয়ে দ্রুত মোটর সাইকেল যোগে সটকে পড়ে। গুরুতর আহত অবস্থায় মিথুনকে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ঘটনার বিষয় মিথুনের মাতা রোজিনা বেগম খোঁজ খবর নিয়ে পরের দিন কোতয়ালি থানায় এজাহার দায়ের করে।এদিকে,রোববার রাত সাড়ে ১০ টায় চাঁচড়া ফাঁড়ি পুলিশ শহরের চাঁচড়া ডালমিল শুল্ক গোডাউনের পাশ থেকে বাবু শিকদারের পুত্র সালমান শিকদার ওরফে ভিকি ও ষষ্টিতলা রেলগেট এলাকার বাচ্চু ওরফে বাচ্চু ড্রাইভারের পুত্র ইব্রাহিম হোসেন ওরফে ডলারকে আটক করতে গেলে সেখানে গুলি বর্ষন ও বোমাবাজির ঘটনায় ভিকি ও ডলাল গুলি বিদ্ধ হয় বলে জানাগেছে।

## যশোরে নিরাপদ সড়কের দাবিতে বিমানবন্দর স্কুলের শিক্ষার্থীদের স্মারকলিপি প্রদান
যশোর অফিস: নিরাপদ সড়কসহ সাত দফা দাবিতে যশোর বিমানবন্দর স্কুলের শিক্ষার্থীরা স্মারকলিপি দিয়েছে। সোমবার দুপুরে যশোর জেলা প্রশাসকের কাছে এই স্মারকলিপি দেয়। অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা) জাহিদ হাসান পনি এই স্মারকলিপি গ্রহণ করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন বিদ্যালয়ের শিক্ষক মিজানুর রহমান, ঝরনা রাণি, জাহিদুল ইসলাম জাহিদসহ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।বিমানবন্দর স্কুলের শিক্ষক ও কয়েকশ’ শিক্ষার্থী স্বাক্ষারিত স্মারকলিপিতে বলা হয়েছে, সড়ক দুর্ঘটনায় দায়ী ব্যক্তির দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি ও আর্থিক সহায়তা দিতে হবে। রাস্তার দু’পাশে অবৈধ দখলদারদের উচ্ছেদ করতে হবে। শহর ও শহরতলীতে ট্রাফিক ব্যবস্থা জোরদার করতে হবে।
উল্লেখ্য, গত ১২ জুন সকালে স্কুলে যাবার পথে যশোর শহরের পালবাড়ি এলাকায় ট্যাঙ্কলরির চাপায় বিমানবন্দর স্কুলের ১০ম শ্রেণীর ছাত্রী ফেরদৌসি চৈতি আহত ও তার বাবা আশরাফ আলী নিহত হন।

## যশোরের কৃষি অফিস স্থানান্তরের প্রক্রিয়ার খবরে ক্ষুব্ধ কৃষক
যশোর অফিস: যশোরে অবস্থিত কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের আঞ্চলিক অফিসটি স্থানান্তর প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। ১৯৫৫ সাল থেকে অতিরিক্ত পরিচালকের এ কার্যালয়টি (খুলনা বিভাগীয় অফিস) যশোরে থাকলেও এখন তা সরিয়ে নিতে তোড়জোড় করা হচ্ছে। কৃষি মন্ত্রণালয়ের সম্প্রসারণ শাখা নতুন খসড়া সাংগঠনিক কাঠামো দাঁড় করিয়ে আঞ্চলিক অফিস হিসেবে খুলনা ও কুষ্টিয়ার নাম প্রস্তাব করেছে। আর এ খবরে চরম নাখোশ হয়েছেন এ জেলার কৃষক ও রাজনীতিকরা।অফিসটি স্থানান্তর না করার জন্য সংসদ সদস্য রণজিত কুমার রায় এবং যশোর সদর ৩ আসনের সাংসদ কাজি নাবিল আহমেম্মদ ও উপজেলা চেয়ারম্যান শাহীন চাকলাদার কৃষিমন্ত্রীকে ডিও লেটার দিয়েছেন। এছাড়া মন্ত্রীর কাছে চিঠি লিখেছেন যশোর সদরের সিআইজি কৃষক সমিতির সভাপতি আসাদুজ্জামান মুকুল ও কৃষক সংগঠক আইয়ুব হোসেন। সূত্র মতে, ৩ জুন কৃষি মন্ত্রণালয়ের সম্প্রসারণ শাখা-১ এর সিনিয়র সহকারী সচিব সারওয়ার মুর্শেদ চৌধুরী একটি সাংগঠনিক কাঠামো তৈরি করে অধিদপ্তরের মহাপরিচালকের কাছে পাঠান। এতে যশোরে অবস্থিত (খুলনা বিভাগীয়) আঞ্চলিক কার্যালয় দুভাগে বিভক্ত করে একটি অংশ খুলনায় এবং অপর অংশ কুষ্টিয়ায় নেওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

## যশোরে বন্দুক যুদ্ধে দুই সন্ত্রাসী গুলিবিদ্ধ
যশোর অফিস: যশোরে পুলিশের সাথে কথিত সংঘর্ষে ডলার ও ভিকি নামে দুই সন্ত্রাসী গুলিবিদ্ধ হয়েছে। পরে তাদেরকে আটক করে যশোর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে একটি ওয়ান শ্যুটারগান, এক রাউন্ড গুলি, ৫ টি বোমা ও একটি রামদা উদ্ধার করেছে পুলিশ।
রবিবার রাতে যশোর শহরের চাঁচড়া ডাল মিল এলাকায় কাস্টমসের শুল্ক গুদামের পাশে এ ঘটনা ঘটে। ডলার শহরের ষষ্টিতলা এলাকার বাচ্চু মিয়ার ছেলে এবং ভিকি রেলগেট এলাকার বাবু সিকদারের ছেলে।
কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শহিদুল ইসলাম জানান, শহরেরে চা৭চড়া এলাকার শুল্ক গুদামের পাশে কতিপয় সন্ত্রাসী নাশকতামূলক কর্মকাণ্ডের জন্য অবস্থান করছিল। খবর পেয়ে চাঁচড়া ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই জামাল উদ্দিন ফোর্স নিয়ে সেখানে যায়। সন্ত্রাসীরা পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে তাদের লক্ষ্য করে কয়েকটি বোমার বিস্ফোরণ ঘটায়। জবাবে পুলিশ কয়েক রাউন্ড গুলিবর্ষণ করে। এতে সন্ত্রাসী ডলার ও ভিকি গুলিবিদ্ধ হয়। সাথে সাথে পুলিশ তাকে আটক করে। তবে তাদের সহযোগীরা পালিয়ে যায়। পুুলিশ ঘটনাস্থল থেকে একটি ওয়ান শ্যুটারগান, এক রাউন্ড গুলি, ৫ টি বোমা ও একটি রামদা উদ্ধার করে। ওসি আরও জানান, সন্ত্রাসী ডলারের বিরুদ্ধে ৯ টি মামলা রয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই