মেইন ম্যেনু

বিশ্বকাপ জয়ে আর্জেন্টিনাকে সমর্থন ব্রাজিলবাসীর!

বিভিন্ন কারণে ব্রাজিলবাসীর অনেকেই সাপোর্ট করবে আর্জেন্টিনাকে! চাইবে ব্রাজিল নয় শিরোপা জিতুক আর্জেন্টিনা! অবিশ্বাস্য হলেও সত্যি। রিও ডি জেনারিওতে চালানো এক পরিসংখ্যান তাই বলছে। মূলত বিশ্বকাপ আয়োজন করতে বিগত কয়েক মাস ধরে ব্রাজিলবাসী যেসব আর্থনৈতিক ও সামাজিক তিক্ত অভিজ্ঞতার মুখে পড়ছে সেটাই এ বিরূপ অনুভূতির কারণ।

বিশ্বকাপকে ঘিরে শ্রমিক অসন্তোষ, বর্তমান সরকারের বিভিন্ন কর্মকাণ্ড ও রাজনৈতিক পরিস্থিতিই নাকি ব্রাজিলের কিছুসংখ্যক লোককে বাধ্য করছে তাদের ফুটবল প্রতিদ্বন্দ্বীকে সমর্থন জোগাতে।

ব্রাজিলের রিও ডি জেনেরিওর এক সাংবাদিক জানান, তাদের মধ্যে অনেকেই মনে করেন যে, ব্রাজিল বিশ্বকাপ জিতলে তার পুরো কৃতিত্বই পাবে বর্তমান সরকার। এমন বিশ্বাস রয়েছে স্থানীয় অনেক লোকেরই। আর এটা অবাক করার মত কোনা ধারণাও নয়। ব্রাজিলের বর্তমান প্রেসিডেন্ট দিলমা রৌসেফের মেয়াদ শেষ হচ্ছে আগামী অক্টোবরেই। তাই ব্রাজিলের বিশ্বকাপ বিজয়ের সফলতা তাই তাদের পেছনের অনেক ব্যর্থতাকে ঢেকে দেবে- এমন আশঙ্কা করছেন অনেক ব্রাজিলিয়ান। আর এটা চাননা অনেকেই।

দৃষ্টান্তস্বরূপ গত গ্রীষ্মে বাস ভাড়া বাড়ানো হয়েছে ৯ পার্সেন্ট। আর তাতে স্থানীয়দের জীবন যাত্রায় প্রভাব পড়েছে। তাদের কষ্ট হচ্ছে। তাই বাইরে থেকে আসা আর্জেন্টিনা সমর্থকদের সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করতে পারে নিম্নবিত্ত ব্রাজিলিয়ানরা।

এক সেলিব্রেটি ধারাভাষ্যকার যে কিনা আর্জেন্টিনার বিপক্ষে বিদ্বেষপূর্ণ কথা বলার জন্য বিখ্যাত সেও বলতে শুরু করেছে, বিশ্বকাপ জিতবে আর্জেন্টিনা। রাজনৈতিক সব কারণ ছাড়া আরও অনেক কারণও আছে তার পেছনে।

কোচ লুইস ফেলিপ স্কলারি ২০০২ সালে যে বিশ্বকাপ জিতেছিলেন তা ছিল রোনালল্ডো, রোনালদিনহো ও রিভালদোর দল। তারা ছিলেন আগুনের ফুল্কার মত এক একজন খেলোয়াড়। কিন্তু অস্কার, হাল্ক, ফ্রেড কিংবা নেইমার ততোটা প্রমাণ এখন পর্যন্ত কি নিজেদের করতে পেরেছেন। সম্প্রতি সার্বিয়ার বিপক্ষে ১-০ গোলের জয়ও তাই বলে। প্রত্যেকটা বিশ্বকাপ জয়ের পেছনে অসাধারণ কিছু খেলোয়াড় থাকে। এবার ব্রাজিলে আছেন নেইমার। কিন্তু নেইমার যদি কাজ না করে তখন কি হবে। কে গড়ে দেবেন সেই ম্যাচের ভাগ্য? এসব কারণও কাজ করছে সেই আর্জেন্টাইন সাপোর্টারদের মধ্যে।

তবে একটা জয়ই হয়ত অন্যসব ব্রাজিলিয়ানদের কাতারে নামিয়ে আনবে এই অতিমাত্রায় রাজনৈতিক চিন্তায় ব্যস্ত ব্রাজিলিয়ানদের। এখন পর্যন্ত ব্রাজিলের রাজধানীতে ব্যানার, ফেস্টুন বা রঙের কারসাজি যতটুকু থাকার কথা তার কিছুই নেই। একটা জয়ই সব পাল্টে দেবে এটা নিশ্চিত। তবে ব্রাজিল যদি হেরে বসে তাহলে রিও ডি জেনেরিওর রূপ স্বাগতিকদের জন্য হবে আরও করুণ।






মন্তব্য চালু নেই