মেইন ম্যেনু

পাকিস্তান হঠাৎ ভারতের ‘বন্ধু’ হয়ে গেল কী করে?

হাফিজ সইদকে নিয়ে এত বছর ধরে ভারত তথ্যপ্রমাণ দিয়ে এসেছে পাকিস্তানের কাছে। চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছে ভারতে জঙ্গি হামলার পিছনে এই জামাত-উদ-দাওয়ার নেতার হাত রয়েছে। কিন্তু পাকিস্তান মানতে চায়নি। বরং বহাল তবিয়তে পাকিস্তানের মাটি থেকে ভারতের বিরুদ্ধে নানা ষড়যন্ত্র করে গেছেন প্রকাশ্যেই।

সেই পাকিস্তানই এখন জেইউডি-র নেতা হাফিজ সইদকে গ্রেফতার করে গৃহবন্দি করে রেখেছে। পাকিস্তানের জঙ্গি দমন আইনকে কাজে লাগিয়ে হাফিজের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়েছে সে দেশের সরকার।

এমন কী পাকিস্তানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রী খোওয়াজা আসিফ বলছেন, হাফিজ সইদ পাকিস্তানের পক্ষে বিপদজনক। কেন এমন করছে পাকিস্তান সরকার?

বিশেষজ্ঞদের মতে, শুধু ফেব্রুয়ারি মাসেই আটটি জঙ্গি হামলা হয়েছে পাকিস্তানে। ফলে পাকিস্তানের উপর চাপ বাড়ছিলই। আমেরিকায় ডোনাল্ড ট্রাম্পের সরকার আসতেই সে চাপ বেড়ে গেছে কয়েক গুন।

মার্কিন রাষ্ট্রপতি ট্রাম্প একরকম শপথই নিয়ে নিয়েছেন যে, বিশ্ব থেকে ইসলামি সন্ত্রাসকে সমূলে উৎপাটিত করবেন। আর পাকিস্তান যদি সন্ত্রাসবাদীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা না নেয়, তাহলে পাকিস্তানের সঙ্গে সম্পর্কও ত্যাগ করবেন। এর সঙ্গেই বিশ্বের দরবারে ভারত তার চাপ বজায় রেখেছে।

এদিকে আমেরিকার থেকে পাকিস্তান যা অনুদান পায়, সম্পর্ক ভেঙে গেলে সেই টাকাও আসা বন্ধ হয়ে যাবে। কাজেই আপাতত হাফিজ সইদের মতো জঙ্গিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা না নিয়ে পাকিস্তানের উপায় নেই।






মন্তব্য চালু নেই