মেইন ম্যেনু

আইপিএল ফাইনাল

‘জারা’ প্রীতির কাছে ক্ষমাপ্রার্থী ‘বীর’ শাহরুখ

এটা সিনেমার চিত্রলিপি নয় যে নায়ক বারবার নায়িকার খুশির জন্য আত্মত্যাগে নেমে পড়বেন।

নিজের সুখ-হাসি-উচ্ছ্বাসকে নায়িকার খুশির কাছে জলাঞ্জলি দেবেন। তাই রোববার ব্যাঙ্গালোরের চিন্নাস্বামী স্টেডিয়ামে বলিউডের বিখ্যাত সিনেমা ‘বীরজারা’ কিংবা ‘কাল হো না হো’র মতো আর কোনো ট্র্যাজেডি দেখতে হয়নি ক্রিকেটমোদীদের। এদিন ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) রুদ্ধশ্বাস এক ফাইনালে ‘বীর’ শাহরুখ খানের দল ‘জারা’ প্রীতি জিনতার দলকে তিন উইকেটে হারিয়ে দিয়েছে। আর ২০১২ সালের পর দ্বিতীয়বারের মতো জিতে নিয়েছে আইপিএল শ্রেষ্ঠত্বের মুকুট।

তবে প্রিয় বন্ধু প্রীতি জিনতার দলকে হারিয়ে শাহরুখ উৎফুল্ল হলেও তাতে একটা ‘লাগাম’ টেনেছেন। তাই আনন্দ প্রকাশের ক্ষেত্রে বারবার সংযত হয়েছেন কেকেআর মালিক। এমনকি দলের ভিক্টরি ল্যাপের সময় পাঞ্জাবের জার্সি পরে হাজির হন কিংখান। কিন্তু এ কী! গোটা দলের জন্য যিনি এ দিন বিশেষ ‘চ্যাম্পিয়ন’ লেখা টি-শার্ট এনেছেন, তার নিজের গায়ে পঞ্জাবের লাল জার্সি কেন? প্রশ্নটা শুনে শাহরুখের জবাব, ‘মোটেই পাঞ্জাবের জার্সি পরিনি। আমি সেই মানুষটার জার্সি পরেছি, যাকে আমি সবচেয়ে বেশি ভালোবাসি। প্রীতির মতো বন্ধু আমার কমই আছে।’

পাঞ্জাব মালকিনের হাত থেকে শেষ মুহূর্তে কাপ ছিনিয়ে নিলেও প্রিয় বন্ধুর ক্ষতে প্রলেপ দিতে ভুল হলো না শাহরুখের। বীর বললেন, ‘ক্ষমা করে দাও জারা। এবার আর আত্মত্যাগ করতে পারলাম না!’ শাহরুখ পরে এও জানান যে, ফাইনালে আর যার বিরুদ্ধেই হোক, প্রীতির দলের বিরুদ্ধে খেলতে চাননি তিনি। কারণ এতে যে বন্ধুর বিরুদ্ধেই যুদ্ধে নামতে হবে তাকে।
উল্লেখ্য, আইপিএলের ৭ম আসরে শাহরুখের কোলকাতা নাইট রাইডার্স ৩উইকেটে প্রীতির পাঞ্জাবকে হারিয়ে শিরোপা জিতেছে।






মন্তব্য চালু নেই