মেইন ম্যেনু

জঙ্গিদের তথ্য জানায় জাহিদের শাশুড়ি

রাজধানীর দক্ষিণখানের আশকোনায় জঙ্গি আস্তানায় অভিযান চালাচ্ছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।

শনিবার ভোর থেকে পুলিশ ওই ভবন ঘিরে রাখে। অভিযান এখনো চলছে।

সূর্যভিলা ভবনে জঙ্গিরা যে অবস্থান করছে সেই তথ্য পুলিশকে জানায় নিহত জঙ্গি প্রাক্তন মেজর জাহিদুল ইসলামের শাশুড়ি জহুরা আক্তার।

ঘটনাস্থল থেকে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

তিনি জানান, জাহিদুল ইসলামের শাশুড়ির দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতেই এ বাড়িতে অভিযান চালানো হয়। অভিযান চালানোর পর পুলিশের পক্ষ থেকে তাদের আত্মসমর্পণ করতে বলা হয়। এরপর সকাল সাড়ে ৯টার দিকে নিহত জাহিদুল ইসলামের স্ত্রী জেবুন্নেসা ও তার মেয়ে, নিহত মুসার স্ত্রী তৃষ্ণা ও তার ছেলে বাসা থেকে বেরিয়ে আসে। ভেতরে এখনো তিন জঙ্গি অবস্থান করছে।

ওই বাড়ির মালিক জামালের মেয়ে জোনাকি জানান, তার বাবা কুয়েত প্রবাসী। তিনি ওই বাড়িতেই থাকতেন। গত ৫ মাস আগে ইমতিয়াজ নামের এক যুবক চাকরিজীবী পরিচয়ে তাদের বাসা ভাড়া নেয়। প্রয়োজনীয় কাগজপত্র নিয়েই তাদের ভাড়া দেওয়া হয়।

তিনি আরো জানান, এতদিন সন্দেজনক তেমন কিছু চোখে পড়েনি। তবে তাদের কাছে অনেক লোকজন যাওয়া আসা করত। এ বিষয়ে ইমতিয়াজ তাদের জানান, যারা আসে তারা তার স্বজন।

জোনাকি আরো জানান, তিনতলা ভবনের নিচ তলাতে তারা থাকতেন। ঘরে তেমন কোনো ফার্নিচার ছিল না।

উল্লেখ্য, গত ২ সেপ্টম্বর রাতে রাজধানীর মিরপুরে রূপনগরের ৩৩ নম্বর সড়কে ৩৪ নম্বর বাড়িতে পুলিশের অভিযানে জঙ্গি জাহিদুল ইসলাম নিহত হন। এরপর গোয়েন্দা পুলিশ জাহিদুল ইসলামের শ্বশুর মমিনুল হক ও শাশুড়ি জহুরা আক্তারকে কয়েকবার জিজ্ঞাসাবাদ করে।






মন্তব্য চালু নেই