মেইন ম্যেনু

কালো টাকা গচ্ছিতকারী ভারতীয়দের নামের তালিকা তৈরি করল সুইত্জারল্যান্ড

দিলীপ মজুমদার (কলকাতা): সেদেশের ব্যাঙ্কগুলিতে কর বহির্ভূত সম্পদ আমানতকারী সন্দেহভাজন ভারতীয়দের নামের একটি তালিকা তৈরি করেছে সুইত্জারল্যান্ড সরকার। আর ওই তালিকা ভারত সরকারের হাতে তুলে দেওয়া হবে। সুইস ব্যাঙ্কগুলিতে জমা রাখা ভারতীয়দের কালো টাকা উদ্ধারের প্রচেষ্টা চালাচ্ছে ভারত সরকার। এর মধ্যে সুইস-সরকারের তালিকা পেলে ওই প্রচেষ্টায় বাড়তি মাত্রা যোগ হবে বলেই মনে করা হচ্ছে।

সম্প্রতি সুইস সরকার সেদেশের ব্যাঙ্কগুলিতে জমা রাখা তহবিলের প্রকৃত লাভবানদের চিহ্নিত করার কাজ শুরু করে। আর তা করতে গিয়েই বেশ কিছু ভারতীয় ও সংস্থার নাম সন্দেহের তালিকায় চলে আসে। এই নামগুলির তালিকাই তৈরি করেছে সুইস সরকার। সেদেশের এক পদস্থ আধিকারিক একথা জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন, এই ব্যক্তি বা সংস্থাগুলি ট্রাস্ট,ডোমিসিলিয়ারি কোম্পানি বা অন্যান্য ভারতের বাইরের দেশের কোনও সংস্থার মাধ্যমে কর-ফাঁকি দেওয়া অর্থ সুইস ব্যাঙ্কগুলিতে জমা রেখেছেন বলে সন্দেহ।

ওই সুইস আধিকারিক অবশ্য তালিকাভুক্ত ব্যক্তি বা সংস্থাগুলির নাম বা তাদের জমা রাখা অর্থের পরিমাণ জানাতে অস্বীকার করেছেন। দ্বিপাক্ষিক বিনিময় চুক্তির গোপনীয়তার ধারাতেই তা করা যাবে না বলে তিনি সাফ জানিয়ে দিয়েছেন। তিনি জানিয়েছেন, ভারতের নতুন সরকারের সঙ্গে কালো টাকার বিষয়ে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করতে আগ্রহী সুইস কর্তৃপক্ষ। তিনি আরও বলেছেন, ভারতের বিশেষ তদন্তকারী দল (সিট)কে তাঁরা সবধরনের সহায়তা করবেন।

তবে সুইস ব্যাঙ্কগুলিতে ভারতীয়দের জমানো টাকার পরিমাণ কয়েক লক্ষ কোটি টাকা বলে যে দাবি উঠেছে তা অবশ্য খারিজ করে দিয়েছেন ওই আধিকারিক। সুইস ন্যাশনাল ব্যাঙ্কের সাম্প্রতিকতম তথ্য অনুযায়ী, সেদেশের ব্যাঙ্কগুলিতে গচ্ছিত বিদেশীদের অর্থের পরিমাণ ১.৬ ট্রিলিয়ন ডলার। সুইস ব্যাঙ্কে ভারতীয়দের গচ্ছিত অর্থের পরিমাণ বেড়ে ১৪ হাজার কোটি টাকাতে পৌঁছে যাওয়া সম্পর্কে প্রশ্নের উত্তরে তিনি জানিয়েছেন, ওই অর্থের মালিকরা তাঁদের ভারতীয় হিসেবেই ঘোষণা করেছেন। কাজেই এক্ষেত্রে বেআইনি অর্থের সম্ভাবনা নেই বললেই চলে।






মন্তব্য চালু নেই