মেইন ম্যেনু

কানাডায় বন্দুকধারীর গুলিতে নিহত ৭

কানাডার এডমন্টন শহরে সোমবার এক বন্দুকধারীর গুলিতে দুই শিশুসহ সাত জন নিহত হয়েছেন। পরে ঘাতক নিজেও আত্মহত্যা করেছেন। এ হত্যার ঘটনাকে ‘কাণ্ডজ্ঞানহীন গণহত্যা’ হিসেবে উল্লেখ করেছে কানাডা পুলিশ।

সোমবার আলবের্তা প্রদেশের এডমন্টন শহরের এক বাড়িতে ঢুকে ওই সাতজনকে হত্যা করে বন্দুকধারী। পরে তাদের মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। এদের মধ্যে তিন নারী, দুই পুরুষ এবং দুই শিশু রয়েছে। নিহত নারী-পুরুষদের বয়স ২৫ থেকে ৫০য়ের কোঠায়। শিশু দুটির বযস দশের নিচে। তবে নিহতদের পরিচয প্রকাশ করেনি পুলিশ। এছাড়া তারা একই পরিবারের সদস্য ছিলেন কিনা সেটিও জানা যায়নি।

পুলিশের ধারণা, ওই ব্যক্তি একাই তাদেরকে এই হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছেন। এ কাজে তাকে কেউ সহায়তা করেনি। তাই তারা অন্য কাউকে খুঁজছেন না।

১৯৫৬ সালের পর কানাডায় এটিই সবচেয়ে বড় গণহত্যা। তখন নিহত হয়েছিল ছয় জন । এ সম্পর্কে শহরের পুলিশ প্রধান রড নেসেট সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন,‘এটি একটি চরম পারিবারিক সহিংসতার ঘটনা। আর পরিকল্পনা করেই এসব হত্যা করা হয়েছে।’

সোমবার ওই ব্যক্তি ২০০৬ সালে চুরি যাওয়া একটি বন্দুক দিয়ে ওই সাত জনকে হত্যা করেন। পরে শহরের এক রেস্টুরেন্টে ঢুকে নিজের আত্মহত্যা করেন। নিহত ওই সাত জনের সঙ্গে ঘাতকের কোনো সম্পর্ক রয়েছে কিনা তাৎক্ষণিকভাবে তা জানা যায়নি।






মন্তব্য চালু নেই