মেইন ম্যেনু

অস্থায়ী যুদ্ধবিরতিতে রাজি হামাস-ইসরায়েল

গাজায় নয় দিনের লড়াই শেষে একটি অস্থায়ী যুদ্ধবিরতিতে রাজি হয়েছে হামাস ও ইসরায়েল।

ইসরায়েলের সেনাবাহিনী বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৩টা পর্যন্ত অস্ত্রবিরতি করতে সম্মত হয়েছে। ওই সময় গাজার বাসিন্দারা প্রয়োজনীয় রসদ সংগ্রহ করতে পারে। তাই এ বিরতিকে মানবিক যুদ্ধবিরতি হিসেবে বর্ণনা করছে ইসরায়েল। হামাস মুখপাত্র সামি আবু জুখরি অস্ত্রবিরতির কথা স্বীকার করে বলেছেন, ওই পাঁচ ঘণ্টা তারা রকেট হামলা থেকে বিরত থাকবে।

এদিকে বুধবার ইসরায়েলি হামলায় একই পরিবারের চারজন শিশু নিহত হওয়ার ঘটনাকে দু:খজনক হিসেবে উল্লেখ করেছে তেলআবিব। এই চারজন শিশু গাজার সমৃদ্ধ সৈকতে খেলা করার সময় সেখান গোলা বর্ষণ করলে তারা নিহত হয়। হামলার ঘটনাটি ঘটে একটি হোটেলের সামনে যেখানে বিদেশি সাংবাদিকরা অবস্থান করছিলেন। এসব সাংবাদিকরা হামলায় আহত ব্যক্তিদের তাৎক্ষণিক সেবা করেন। ইসরায়েল বলছে, তারা ফিলিস্তিনের হামাসকে লক্ষ্য করে ওই হামলা চালিয়েছিল। হামাস বলছে এই ঘটনা যুদ্ধাপরাধের সামিল।

ইসরায়েলের একজন জেনারেল বিবিসিকে বলেছেন, বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় সকাল দশটা থেকে দুপুর তিনটা পর্যন্ত এই যুদ্ধবিরতি করবে। জাতিসংঘের আওতায় এই অস্থায়ী যুদ্ধবিরতিতে রাজি হয়ে ইসরায়েল বলছে, এই পাঁচ ঘণ্টার মধ্যে গাজার মানুষ যাতে তাদের রসদ সংগ্রহ ও মজুদ করতে পারে তারা সে ব্যবস্থা করবে।

ফিলিস্তিনিদের এই যুদ্ধবিরতিমেনে নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা। প্রেসিডেন্ট ওবামা বলছেন ‘গত দুই সপ্তাহ ধরে চলা সংঘর্ষ- বিশেষ করে গাজায় সাধারণ মানুষের প্রানহানীর ঘটনা সত্যিই হৃদয়বিদারক। সে কারণেই আমরা ঐ অঞ্চলেএকটি যুদ্ধবিরতি আনার জন্য অংশীদারদের সাথে কাজ করছি যাতে উভয় পক্ষের সাধারণ মানুষ রক্ষা পায়।’

এদিকে গত নয় দিনের লড়াইয়ে ২২০ জন ফিলিস্তিনী নিহত হয়েছে। অন্যদিকে হামাসের রকেট হামলায় মাত্র একজন ইসরায়েলী প্রাণ হারিয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই