মেইন ম্যেনু

যশোরে অপহরণকারীসহ চার সন্ত্রাসী আটক

যশোর কোতয়ালি পুলিশ অভিযান চালায়। এ সময় দুই অপহরণকারী ও দুই সন্ত্রাসীকে আটক করেছে। আটককৃতরা হচ্ছে,কুষ্টিয়া জেলা মীরপুর উপজেলার উত্তর কাড্ডা গ্রামের আব্দুল সিরাজের পুত্র আসাদুজ্জামান ওরফে বাবু . চুয়াডাঙ্গা জেলার জীবননগর উপজেলার হান্নানের পুত্র রুবেল ,যশোর শহরের হরিনাথ দত্ত লেন বাগমারা পাড়া মাইকপট্টি এলাকার সুব্রত দত্তের পুত্র জয় ও তার সহযোগী অসিম রায়ের পুত্র সুব্রত। এ ব্যাপারে যশোর কোতয়ালি থানায় পৃথক মামলা হয়েছে।
পুলিশ জানায় যশোর সদর উপজেলা ঝিনাইদহ জেলার কোট চাঁদপুর উপজেলা ছাবদাল পুর গ্রামের আব্বাসের পুত্র মাছুম মন্ডল বাসে ও ট্রেনে ফেরি করে বিভিন্ন ফল বিক্রি করে। সোমবার সন্ধ্যায় মাছুম যশোর ক্যান্টনমেন্ট রেলষ্টেশন এলাকার কাছে বাবু ও রুবেল সব ফল ক্রয়ের কথা বলে পাশে নিয়ে যায়। তারা তাকে জোর পুর্বক মাইক্রোবাসে তুলে শহরের চাঁচড়া রায়পাড়া আনোয়ারের বাড়ির একটি কক্ষে আটক রাখে। পরে মাছুম মন্ডলের কাছ থেকে তাদের বাড়িতে ফোন করে ২০ হাজার টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। পরে মাছুমকে উদ্ধা করে। এ সময় আসাদুজ্জামান বাবু  ও রুবেলকে আটক করে। অপরদিকে
হোসাইন জয় দত্তকে কবুতর চোর বলে। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে মঙ্গলবার সন্ধ্যারাতে জয়দত্ত ও তার সহযোগী সুব্রতসহ অজ্ঞাত দুইজন হোসাইনকে বাড়ির সামনে থেকে ডেকে চাকু দিয়ে উপুর্যপরি ছুরিকাঘাত করে। এতে সে গুরুতর আহত হয়। এ সময় স্থানীয় লোকজন জয় দত্ত ও সুব্রত সরকারকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে।

যশোরে কীটনাশক পানে
এক ব্যাক্তির আত্মহত্যা
যশোর অফিস: যশোরে মোমিনুর রহমান নামে এক ব্যক্তি কীটনাশক পান করে আত্মহত্যা করেছে। সে যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলা ছুটিপুর গ্রামের সামাদের পুত্র।
মঙ্গলবার দুপুরে মোমিনুর পারিবারিক কলহের এক পর্যায় কীটনাশক পান করে। এ সময় বাড়ির লোকজন তাকে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে। চিকিৎসাধিন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়েছে। এ ব্যাপারে যশোর কোতয়ালি থানায় মামলা হয়েছে।

যশোরে ইয়াবা ফেনসিডিল
গাঁজাসহ তিনজন আটক
যশোর কোতয়ালি থানা ডিবি ও সদর ফাঁড়ির পুলিশ পৃথক অভিযান চালায়। এ সময়  তিন মাদক বিক্রেতাকে আটক করেছে। তাদের কাচথেকে ৫০ পিস ইয়াবা,২০ বোতল ফেনসিডিল ও ৫০ গ্রাম গাঁজা উদ্ধার করেছে। আটককৃতরা হচ্ছে,যশোর সদর উপজেলা বড় মেঘলা গ্রামের শাহানুর রহমানের পুত্র আসাদুজ্জামান ওরফে আসাদ,সদর উপজেলা দেয়াড়া সরদার পাড়ার রমজান আলীর পুত্র সাইফুল ইসলাম ও  শহরের বেজপাড়া বানানী রোডের শহিদুল ইসলামের স্ত্রী মোছাম্মদ সাথী বেগম।
মঙ্গলবার গভীর রাতে যশোর কোতয়ালি থানা পুলিশ সদরের বড় মেঘলা বাবলুর মুদী দোকানের সামনে অভিযান চালায়। এ সময় আসাদকে আটক করেছে। তার কাছ থেকে ৫০ গ্রাম গাঁজা উদ্ধার করে।অপর দিকে,ডিবি পুলিশ শহরের কায়েমখোলা রোডের শাহজাহানের চা পানের দোকানের সামনে থেকে সাইফুল ইসলামকে ২০ বোতল ফেনসিডিলসহ আটক করে। এছাড়া সদর ফাঁড়ির পুলিশ শহরের লাল দিঘীর পশ্চিম পাড়ে অভিযান চালায়। এ সময় সাথী বেগমকে আটক করে। তার কাছ থেকে ৫০ পিস ইয়াবা উদ্ধার করেছে।  এ ব্যাপারে কোতয়ালি থানায় পৃথক মামলা হয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই