মেইন ম্যেনু

বিচারিক ক্ষমতা পাচ্ছেন না ম্যাজিস্ট্রেটরা : মন্ত্রিপরিষদ সচিব

গতবছর জেলা প্রশাসক সম্মেলনে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনার জন্য ম্যাজিস্ট্রেটদের বিচারিক ক্ষমতা প্রদানের প্রস্তাব করেছিলেন জেলা প্রশাসকরা। ওই প্রস্তাব বাস্তবায়িত হয়নি বলে জানিয়েছেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোশাররাফ হোসাইন ভুইঞা।

রোববার সচিবালয়ে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে তিনি এ কথা জানান।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব জানান, আগামী ৮ জুলাই সকাল ১০টায় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের শাপলা হলে জেলা প্রশাসক সম্মেলন উদ্বোধন করবেন শেখ হাসিনা। তিনদিনব্যাপি এ সম্মেলনে ৩৯টি মন্ত্রণালয় ও বিভাগ অংশ নেবে। জেলা প্রশাসক সম্মেলন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে উদ্বোধন হলেও বিভিন্ন কার্য অধিবেশন সচিবালয়ে অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়া সম্মেলনের দ্বিতীয় দিনে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সাক্ষাৎকার রয়েছে জেলা প্রশাসকদের। এ সম্মেলনে মাঠ পর্যায়ের জেলা প্রশাসকরা মাঠ পর্যায়ের সম্ভাবনা ও সমস্যার কথা তুলে ধরবেন। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে তারা মুক্ত আলোচনায় অংশ নিবেন।

সচিব জানান, ডিসি সম্মেলনে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি, সামাজিক নিরাপত্তা, দ্রব্যমূল্য সহনীয় পর্যায়ে রাখা, স্বাস্থ্যসেবার নিশ্চিত করাসহ বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের পর্যালোচনাসহ নানা বিষয়ে আলোচনা হবে। এ সম্মেলনে বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের ও বিভাগের বিভিন্ন সমস্যা সমাধানের বিষয়ে আলোচনা হবে। সেখানে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী, উপদেষ্টা, প্রতিমন্ত্রী ও সচিবরা উপস্থিত থাকবেন।

সচিব আরও জানান, গতবারের জেলা প্রশাসকদের সুপারিশমালার ৯২ ভাগ বাস্তবায়িত হয়েছে। এবছর জেলা প্রশাসকদের পক্ষ থেকে ৩০৭টি প্রস্তাবনা দেয়া হয়েছে।

জেলা প্রশাসক সম্মেলনের প্রেক্ষাপট বর্ণনা করে সচিব বলেন, ‘জেলা প্রশাসকরা মাঠ পর্যায়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন। তাই এ সম্মেলনটা গুরুত্বপূর্ণ। জেলা প্রশাসকরা তাদের উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের সমন্বয় ও আইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণে রাখেন। তাই আমাদের দেশের প্রেক্ষাপটে তাদের ভূমিকা অনেক বেশি।’

মন্ত্রিপরিষদ সচিব জানান, সরকার যে পলিসি প্রণয়ন করে মাঠ পর্যায়ে তা সমন্বয় করে বাস্তবায়ন করেন জেলা প্রশাসকরা। তাই তারা যে সমস্যাগুলো তুলে ধরেন সেই সমস্যাগুলো নিয়ে সরাসরি কর্তৃপক্ষের সঙ্গে মুখোমুখী কথা বলার সুযোগ পান তারা। এ সম্মেলনে মন্ত্রী এবং সচিবরা সরাসরি ডিসিদের দিক নির্দেশনা দিতে পারেন।

সচিব বলেন, ‘ডিসিরা অনেক প্রস্তাব দিয়ে থাকেন। কিন্তু সব প্রস্তাব বাস্তবায়ন সম্ভব না।’

তিনি আরও বলেন, ‘ডিসিরা সরকারের প্রতিনিধি। তারা জনগণের প্রতিনিধি নয়। তাদের প্রধান কাজ হলো সরকারের পলিসি বাস্তবায়ন করা। তবে তারা স্থানীয় জনগণের চাহিদা ও সমস্যা তুলে ধরতে পারেন। কারণ সরকারের বিভিন্ন কার্যক্রম তারা জনগনের সঙ্গে সমন্বয় ঘটিয়ে করে থাকেন। তারা জনগণের পালস বুঝেন ও সরকারকে তা জানান।’



(পরের সংবাদ) »



মন্তব্য চালু নেই