মেইন ম্যেনু

ত্বকের যত্নে ফলের খোসা

রমজানে প্রতিদিনই আমরা কোন না কোন ফল দিয়ে ইফতার করি। লেবু, কমলা, কলা, পেঁপেসহ নানা রকম ফল খেয়ে ফলের খোসা ময়লার ঝুড়িতে ফেলে দেই। ফলের খোসা ময়লার ঝুড়িতে ফেলে না দিয়ে রুপচর্চায় ব্যবহার করতে পারি।

যারা অনেক বেশি ঘামেন এবং যাদের শরীর থেকে ঘামের গন্ধ বের তারা গোসলের ২০ মিনিট আগে পানিতে লেবুর খোসা ডুবিয়ে রাখুন। খোসা ডোবানো পানি দিয়ে গোসল করলে মাথার চুল থেকে সারা শরীর দিয়ে লেবুর গন্ধ বের হবে।

কমলালেবুর খোসা পানিতে ফুটিয়ে ছাকনি দিয়ে ছেকে একটি বোতলে ভরে ফ্রিজে রেখে দিন। এই পানি সুগন্ধির কাজ করবে। ঘরের বাইরে বেরোনোর আগে এটি শরীরে লাগিয়ে নিলে সারাদিন গায়ে কমলার ঘ্রান থাকবে।

কমলার খোসা শুকিয়ে গুঁড়ো করে রেখে দিন। প্রতিদিন সামান্য গরম পানি মিশিয়ে ত্বকে লাগিয়ে ২০ মিনিট পর পরিষ্কার পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। প্রতিদিন এই প্যাকটি ব্যবহার করলে ত্বক উজ্জ্বল হয়।

পেঁপের খোসা দিয়ে পায়ের পাতা ও গোড়ালি ঘষলে পা কোমল থাকে। এছাড়াও গোড়ালি ফাটার সমস্যা থেকেও রেহাই পাওয়া যায়।

দাঁতের হলদে ভাবের জন্য অনেকেই প্রাণ খুলে হাসতে লজ্জা পান। এই সমস্যাও দূর করতে পারে ফেলে দেয়া কলার খোসা। কলার খোসা দিয়ে রোজ দুবেলা দাঁত মাজলে দাঁতের হলদে ভাব দূর হয়ে যায়।






মন্তব্য চালু নেই