মেইন ম্যেনু

জুলাই থেকে পে-স্কেল কার্যকরে কোনো সংশয় নেই

আগামী ১ জুলাই থেকেই পে-কমিশনের সুপারিশ অনুযায়ী সরকারি কর্মকর্তা কর্মচারিদের জন্য নতুন পে স্কেল কার্যকর করা হচ্ছে। এটা নিয়ে কোনও সংশয় নেই বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। তিনি বলেন, এটা তো আগেই ঘোষণা দেওয়া হয়েছে।

অপর এক প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, “পে-কমিশনের প্রতিবেদনের ওপর সচিব কমিটির সুপারিশ দু-এক দিনের মধ্যেই পাওয়া যাবে।”

সোমবার সন্ধ্যায় সচিবালয়ে সকল মন্ত্রণালয় ও বিভাগগুলোর জ্যেষ্ঠ সচিবদের সঙ্গে প্রথম পর্বের প্রাক-বাজেট আলোচনা শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ সব কথা জানান তিনি।

বাংলাদেশ কমার্স ব্যাংকে ডাকাতির ঘটনা প্রসঙ্গে অর্থমন্ত্রীর মন্তব্য জানতে চাইলে তিনি সংশ্লিষ্ট সচিবের কাছে পুরো বিষয় জানতে চান।

এ সময় উপস্থিত অর্থ মন্ত্রণালয়ের ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সচিব ড. এম আসলাম আলম অর্থমন্ত্রীকে জানান, পুলিশ বলছে, এ ঘটনায় জঙ্গী তৎপরতার সঙ্গে জড়িতদের সংশ্লিষ্টতা থাকতে পারে।

সচিবের বক্তব্য শোনার পর অর্থমন্ত্রী বলেন, “ইট ইজ পসিবল।”

প্রাক-বাজেট আলোচনার বিষয়ে অর্থমন্ত্রী জানিয়েছেন, সচিবদের সঙ্গে প্রাক-বাজেট মিটিংয়ে বৈদেশিক সহায়তার বিষয়টি বিশেষ গুরুত্ব পেয়েছে।

বর্তমানে পাইপ লাইনে যে বৈদেশিক সাহায্য রয়েছে এর পরিমাণ প্রায় দুই হাজার ৪০০ কোটি ডলার উল্লেখ করে তিনি বলেন, “কমিটমেন্ট যতটা পাওয়া যায় সে তুলনায় অর্থ ছাড় কম। পাইপলাইনে যে পরিমাণ বৈদেশিক সাহায্য রয়েছে আগামী অর্থ বছরে এর ২০ শতাংশ ছাড় হলেও বাজেটের আকার অনেক বেড়ে যাবে।”

অর্থমন্ত্রী জানান, দাতাদের কার্য পদ্ধতি ও প্রকল্প পরিচালকদের কারণে বাস্তবায়ন প্রক্রিয়া দেরি হয়। একজন প্রকল্প পরিচালক ৩-৪টা প্রকল্পের পরিচালক হিসেবে যুক্ত থাকেন। এটা এখন কমিয়ে আনা হয়েছে।

আইএফসি’র সহযোগিতায় ১০০ কোটি ডলারের সমপরিমাণ ‘টাকা বন্ড’ ছাড়ার প্রসঙ্গে অর্থমন্ত্রী বলেন, “বাজেটের পরই এটা ছাড়া হতে পারে। এ জন্য আইএফসিকে কোনও অর্থ দিতে হবে না। বন্ড ছাড়ার ক্ষেত্রে তারা আমাদের সহযোগিতা করবে।” যে কোনও দেশ থেকে এ টাকার বন্ড ভাঙানো যাবে বলে জানান অর্থমন্ত্রী।

অপর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, “বাজেট সহায়তা হিসেবে বিশ্ব ব্যাংকের কাছে যে ৫০ কোটি ডলার সহায়তা চাওয়া হয়েছে সেটা পাওয়া যাবে।”






মন্তব্য চালু নেই