মেইন ম্যেনু

ইছামতির অবৈধ দখলদারদের স্থাপনা গুঁড়িয়ে দিল জনতা

পাবনা শহরের মধ্য দিয়ে প্রবাহিত ইছামতির অবৈধ দখলদারদের স্থাপনা গুঁড়িয়ে দিয়েছে জনতা। পাবনা শহরের অনন্ত বাঁধসংলগ্ন ইছামতি নদীর জায়গা দখল করে ভূমিদস্যুদের ইমারত নির্মাণের প্রতিবাদে সোমবার বেলা সাড়ে ১২টার দিকে স্থানীয় অনন্ত বাঁধে এলাকাবাসী এক প্রতিবাদ সভা করে। পরে এলাকাবাসী বিক্ষোভ সমাবেশ করে। এ সময় বিক্ষুব্ধ জনতা ইন্ট্রা ফুডের দখল করা অবৈধ স্থাপনা গুঁড়িয়ে দেয়।

পরে এক প্রতিবাদ সভায় পাবনা সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ মোশারফ হোসেন ও পাবনা পৌরসভার মেয়র কামরুল হাসান মিন্টুসহ স্থানীয় বিশিষ্টজনরা বক্তব্য দেন। তাঁরা যেকোনো মূল্যে নদীর অবৈধ দখল ঠেকানো হবে বলে কঠোর হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন। জেলা প্রশাসন ও পানি উন্নয়ন বোর্ডকে এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়ার দাবি জানান বক্তারা। একই সাথে খাস সম্পত্তি ও নদীর জায়গা কীভাবে ব্যক্তি মালিকানাধীন হয়ে গেল তা তদন্তের দাবি জানান জনপ্রতিনিধিসহ বক্তারা।

এলাকাবাসী ইছামতি নদীকে দখল করে কীভাবে স্থানীয় ইন্ট্রাফুড কোম্পানির নামে ভূমিদস্যুরা দখল করছে তা ঘুরিয়ে ঘুরিয়ে দেখান জনপ্রতিনিধিদের। এই নদী দখলের কারণে পাবনা পৌরসভার উদ্যোগে নির্মাণ করা নর্দমার মুখগুলো বন্ধ হয়ে পড়েছে। আর এ কারণে পরিবেশের বিপর্যয় ঘটছে।
এলাকাবাসী ইছামতি নদীকে দখলের এই অপচেষ্টা রোধে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে উদ্যোগী হওয়ার আহ্বান জানান।

এদিকে ইছামতি নদী দখলমুক্ত করার দাবিতে এলাকাবাসী বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে। পরে তারা জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারের কাছে স্মারকলিপি দেয়।

এ সময় বক্তব্য দেন পাবনা পৌরসভার কাউন্সিলর রবিউল ইসলাম রবি, ফরহাদ জোয়ার্দার ও মিজানুর রহমান মিলন, ওবায়েদ আওয়া তাজ, মকলেছ প্রামাণিক, বীর মুক্তিযোদ্ধা আবদুর রশিদ রাসু, সাইফুল ইসলাম, আবুল হোসেন মোহরী, মাহবুবুর রহমান পাকন প্রমুখ।






মন্তব্য চালু নেই