মেইন ম্যেনু

অর্থমন্ত্রীকে মিথ্যুক বললেন তসলিমা

বর্তমান সরকারের অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত কলকাতায় গিয়ে মিথ্যা কথা বলেছেন বলে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন নির্বাসিত লেখিকা তসলিমা নাসরিন। তার দেশে ফেরার প্রশ্নে এর আগে সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী দীপু মনিও দেশে দেশে মিথ্যা বলে বেড়াতেন বলে তিনি উল্লেখ করেছেন।

এ নিয়ে তিনি নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে একটি স্ট্যাটাস দেন সোমবার। পাঠকদের জন্য তসলিমার স্ট্যাটাসটি হুবহু তুলে ধরা হলো-

‘বাংলাদেশের অর্থমন্ত্রী কলকাতায় গেছেন। তাঁকে সাংবাদিকরা জিজ্ঞেস করেছে, কেন বাংলাদেশ সরকার তসলিমাকে দেশে ফিরতে দিচ্ছে না। অর্থমন্ত্রী বলেছেন, ‘তসলিমা দেশে ফিরতে চাইলে সরকারের কোনও আপত্তি নেই।’ ডাহা মিথ্যে কথা। দীপু মণি যখন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ছিলেন, তিনিও তাই করতেন। তিনিও দেশে দেশে বলে বেড়াতেন, ‘তসলিমা চাইলেই দেশে ফিরতে পারে, সরকার তো বাধা দিচ্ছে না।’ এই মিথ্যেগুলো বলার এঁদের দরকার কী, আমি বুঝিনা। বুক ফুলিয়ে বললেই তো হয়, ‘আমরা চাই না তসলিমা দেশে ফিরুক, তাই ওকে ফিরতে দিচ্ছি না, ওর বাংলাদেশ পাসপোর্ট রিনিউ করছি না, ওর বিদেশি পাসপোর্টে ভিসা দিচ্ছি না। এসব করছি যেন বাংলাদেশগামী কোনও বাহনে ও চড়তে না পারে। এমনকী ওর পাওয়ার অব এটর্নিতেও সই করছি না, যেন ভোগে। ও ভুগলে আমাদের আনন্দ হয়।’

সত্য বললে সরকারের অসুবিধেটা কী! কেউ মারবে? মিথ্যে বলতে লোকগুলোর লজ্জা হয় না। এই মিথ্যুক অসৎ লোকগুলো বসে আছে সবার মাথার ওপরে। দেশের কোটি কোটি মানুষ কী করে চলবে না চলবে তার সিদ্ধান্ত নেবার দায়িত্ব তাঁদের।
এঁদের দেখলে আমারই লজ্জা হয়। শুধু লজ্জাই নয়, ঘেন্নাও হয়।



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই