মেইন ম্যেনু

হঠাৎ ধর্মঘটে চরম দুর্ভোগে যাত্রীরা

সারা দেশে মঙ্গলবার সকাল থেকে হঠাৎ করেই ধর্মঘট শুরু করেছেন পরিবহন শ্রমিকেরা। ঢাকার সাভারে ট্রাকচাপা দিয়ে এক নারীকে হত্যার দায়ে সোমবার এক চালকের মৃত্যুদণ্ডাদেশ দেন আদালত। এরই প্রতিবাদে এই কর্মসূচি।

মানিকগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় চলচ্চিত্রকার তারেক মাসুদ, সাংবাদিক মিশুক মুনীরসহ পাঁচজন নিহত হওয়ার ঘটনায় বাসচালক জামির হোসেনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশ দেওয়ার প্রতিবাদে গত রোববার থেকে শুরু করে সোমবার সন্ধ্যা পর্যন্ত খুলনা বিভাগের ১০ জেলায় অনির্দিষ্টকালের পরিবহন ধর্মঘট চালান শ্রমিকেরা। যাত্রীদের দুই দিনের দুর্ভোগের পর যান চলাচল যখন স্বাভাবিক হওয়ার পথে, তখন আজ থেকে পরিবহন শ্রমিকেরা আবার নতুন কর্মসূচি শুরু করেছেন। নতুন করে আবার দুর্ভোগে পড়েছেন যাত্রীরা।

সকাল সাতটা থেকে এই কর্মবিরতি শুরু হয়। এ সময় ট্রাকশ্রমিকেরা কয়েকটি গাড়ি ভাঙচুর করেন। এতে দূরপাল্লার যাত্রীসহ স্থানীয় যাত্রীরাও দুর্ভোগে পড়েছেন।

সরেজমিনে দেখা গেছে, সকাল থেকেই রাজধানীর গাবতলী আন্তজেলা বাস টার্মিনালের সামনে গরুর হাট ক্রসিংয়ে ও দারুস সালামে সড়কে ব্যারিকেড দিয়ে অবরোধ করে রেখেছেন পরিবহন শ্রমিকেরা। দু-একটা প্রাইভেটকার ও লেগুনা ছাড়া আর কোনো গাড়ি চলাচল করছে না। রাজধানী থেকে সাভার ও মানিকগঞ্জ সড়কে যান চলাচল একদম বন্ধ। রাস্তাঘাটে হাজারো যাত্রী গাড়ির অপেক্ষায়। কিন্তু ঢাকা থেকে কোনো গাড়ি বের না হওয়ায় এবং ঢাকায় কোনো গাড়ি ঢুকতে না পারায় চরম ভোগান্তিতে পড়েছেন তাঁরা।

গাবতলী এলাকার দায়িত্বরত ট্রাফিক বিভাগের এক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা বলেন, প্রথমে ট্রাফিক বিভাগের পক্ষ থেকে ট্রাকশ্রমিকদের কথা বলার পর পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক হয়েছিল। কিন্তু সকাল নয়টার পর থেকে আবার তাঁরা অবরোধ শুরু করে ভাঙচুর চালান। ঢাকা মহানগর ট্রাফিক বিভাগের (পশ্চিম) উপকমিশনার লিটন কুমার সাহা বলেন, পরিবহন শ্রমিকদের অবরোধের কারণে কোনো যান চলাচল করতে পারছে না। এতে যাত্রীরা দুর্ভোগে পড়েছেন।

বাংলাদেশ আন্তজেলা ট্রাক চালক শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি তাজুল ইসলাম বলেন, ‘আমাদের দাবি বাসচালক জামির হোসেনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও সড়ক দুর্ঘটনার দায়ে এক ট্রাকচালকের মৃত্যুদণ্ড প্রত্যাহার করতে হবে। এই দাবি না মানা পর্যন্ত অবরোধ কর্মসূচি চলবে। পাশাপাশি সারা দেশে ধর্মঘটও চলবে। ধর্মঘটের অংশ হিসেবে সব ধরনের যান চলাচল বন্ধ থাকবে। তবে অ্যাম্বুলেন্স ও সংবাদপত্রবাহী যান চলাচল করবে।’ পণ্যবাহী কোনো ট্রাক চলাচল করবে কি না-জানতে চাইলে তিনি বলেন, চালক-শ্রমিকেরাই তো ট্রাক চালাবে না।






মন্তব্য চালু নেই