মেইন ম্যেনু

স্ট্রোক থামাতে বাংলা অ্যাপস

ছোটবেলা থেকেই তেমন কোন বড় অসুখের সঙ্গে দেখা নেই আপনার। নিজেকে তাই সুস্থই মনে হয়। কিন্তু জানেন কি,আপনিও স্ট্রোক (ব্রেন অ্যাটাক)-এ আক্রান্ত হতে পারেন! মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়তে পারেন,আবার হতে পারেন পক্ষাঘাতের শিকারও!

এমন নিষ্ঠুর সত্যের সামনে দাড়াতে কারোরই ভাল লাগার কথা নয়। তাই আজই জেনে নিন ভবিষ্যতে আপনি স্ট্রোকের শিকার হতে পারেন কি না?আর তা জানার জন্য হাজির বাংলা অ্যাপস। এর আগে ওই অ্যাপস চালু হয়েছে ইংরেজিতে।

ফ্রি-তেই ডাউনলোড করে নেয়া যাবে অ্যাপসটি। স্ট্রোকের জন্য যে সব রিস্ক ফ্যাক্টর রয়েছে, সে সবের ভিত্তিতে কিছু প্রশ্নের উত্তর যদি আপনি সঠিকভাবে দিতে পারেন, তা হলেই জেনে নিতে পারবেন আপনার স্ট্রোক হওয়ার কোন সম্ভাবনা আছে কি না। অথবা স্ট্রোকে আক্রান্ত হওয়ার কোনও সম্ভাবনা থাকলে, তা কত বছর বয়সে দেখা দিতে পারে, জেনে নেয়া যাবে সেটাও। এ তথ্যের ভিত্তিতেই আপনি স্ট্রোক প্রতিরোধের জন্য ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারবেন। ফলে থামাতে পারেন স্ট্রোকের সম্ভাবনা।

ইংরেজি ভার্সনে স্ট্রোক রিস্কোমিটার অ্যাপসটি চালু করেছেন ওয়ার্ল্ড স্ট্রোক অর্গানাইজেশন। এই ফাউন্ডেশানের দাষিত্বেই বাংলা ভাষায় অ্যাপসটি চালু করবে ফাউন্ডেশান অফ বেঙ্গল (এসএফবি)। স্ট্রোক প্রতিরোধে এ দেশে অন্যতম সংগঠন হিসেবে কাজ করছে এসএফবি।

এসএফবির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি অধ্যাপক দীপেশকুমার মণ্ডল জানিয়েছেন ‘ইংরেজির পাশাপাশি এবার বাংলা ভাষায়ও শিগগিরই চালু হবে স্ট্রোক রিস্কোমিটার অ্যাপস’।

তিনি আরও বলেন, ‘স্ট্রোক এড়ানো অত্যন্ত সহজ কাজ। যদি ধূমপান থেকে বিরত থাকা এবং রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখা সম্ভব হলেই স্ট্রোক এড়ানো সম্ভব’।

এসএফবি-র প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি জানিয়েছেন, স্ট্রোকের জন্য রিস্ক ফ্যাক্টরগুলো নিয়ন্ত্রণে রাখা গেলে ৯০ শতাংশ স্ট্রোক প্রতিরোধ করা সম্ভব। স্ট্রোক রিস্কোমিটার অ্যাপসের মাধ্যমে অত্যন্ত সহজে ওই রিস্ক ফ্যাক্টরগুলির পরিমাপ করে নেয়া যাবে।

স্ট্রোক মানে ব্রেন অ্যাটাক অর্থাৎ মস্তিষ্কের অসুখ। সচেতনতায় পারে এ থেকে মুক্তি দিতে। অথচ সচেতনতার অভাবে স্ট্রোক ছড়িয়ে পড়েছে মহামারি আকারে। আমাদের দেশে প্রতি বছর ২০ লক্ষ মানুষ আক্রান্ত হচ্ছেন স্ট্রোকে। যার মধ্যে মারা যাচ্ছেন ছয় লক্ষেরও বেশি। আবার অনেকেই পক্ষাঘাতের শিকার হয়ে পড়ছেন। তাই নিজের কষ্ট তো আছেই, পরিবারেরও বোঝা হতে না চাইলে এখনই সচেতন হোন।






মন্তব্য চালু নেই