মেইন ম্যেনু

সঙ্গীর উপর অনেক বেশি রাগ অভিমান? জেনে নিন কী করা উচিত আপনার

সম্পর্কে থাকলে একটু রাগ বা অভিমান হওয়াটা অনেক বেশি স্বাভাবিক একটি বিষয়। কারণ সম্পর্কে থাকলে দুজনেরই দুজনের উপর কিছু আশা করে থাকেন। এবং তা পূরণ না হওয়ার কারণেই এই রাগ বা অভিমান। কিন্তু যদি সঙ্গীর উপরে অনেক বেশি রাগ বা অভিমান জন্মায় তখন তার প্রতিফল অনেক বড় ধরণের হতে পারে। মানুষ যখন কিছু না পেতে পেতে অসহ্য হয়ে রাগ বা অভিমান করে তখন তা মারাত্মক ঝগড়ার সৃষ্টি করে যার কারণে সম্পর্কে ভাঙন পর্যন্ত আসতে পারে। তাই যদি সঙ্গীর উপরে অনেক রাগ থাকার পরও সম্পর্ক টিকিয়ে রাখতে চান তাহলে সব কিছু তিক্ত করে ফেলা একেবারেই উচিত নয়। জানতে চান কি করা উচিত? চলুন তবে জেনে নেয়া যাক।

১) সরাসরি কথা বলে রাগ বা অভিমানের কথা বলে ফেলুন
রাগ দুঃখ এবং অভিমান ধরণের আবেগগুলো কারো সাথে শেয়ার করতে পারলে মন অনেক হালকা হয়। আর সঙ্গীর সাথেই যদি বলে নিতে পারেন তাহলে মনের ক্ষোভটা অনেকাংশে আপনাআপনি দূর হয়ে যাবে।

২) কি ব্যাপারে আপনার এই রাগ বা অভিমান তা স্পষ্ট করে বলুন
একগাদা কারণ টেনে আনবেন না। মূলত আপনার বর্তমানে কি বিষয়ে রাগ উঠেছে বা অভিমান হচ্ছে তা সঙ্গীকে স্পষ্ট ভাষায় বলে দিন। এতে করে নিজের বিষয়টি ভালো করে বুঝাতে পারবেন এবং মন শান্ত হবে।

৩) নিজের ব্যাপারটিও স্বীকার করুন
যদি সঙ্গী উল্টো আপনাকে কোনো কারণে প্রশ্ন করেন তাহলে নিজে আরও ক্ষেপে না গিয়ে আগে বোঝার চেষ্টা করুন সঙ্গীর কোথায় যুক্তি রয়েছে কিনা। যদি যুক্তি থাকে তাহলে অযথা চেঁচামেচি না করে নিজের ব্যাপারটিও স্বীকার করে নিন।

৪) যখনকার সমস্যা তখনই মেটাবার চেষ্টা করুন
অভিমান করে বসে থাকলে তা দিনে দিনে বাড়তেই থাকে। যদি রাগ উঠে যায় এবং অভিমান হয় তাহলে সেই ব্যাপারটি তাৎক্ষণিকভাবে মিটিয়ে ফেলার চেষ্টা করুন। এতে করে এই বিষয়টি নিয়ে পরে আবার ঝগড়া হওয়ার সম্ভাবনা কমে যায়।

৫) সঙ্গীর উপরে প্রতিশোধ নিতে যাবেন না ভুলেও
অনেকে রাগ বা অভিমান করে সঙ্গীর উপরে প্রতিশোধ নেয়ার কথা ভাবতে থাকেন। এই ভুলটি করবেন না। এতে সমস্যা আরও মারাত্মক আকার ধারণ করতে পারে।

৬) অন্য কাওকে নিজের সাক্ষী দেয়ার জন্য ডেকে আনবেন না
সঙ্গীকে আপনার রাগ বা অভিমানটি বোঝানোর জন্য অন্য কাউকে ডেকে আনবেন না। নিজের সমস্যা নিজেদের মধ্যেই রাখার চেষ্টা করুন। বরং পরামর্শ চাইতে পারেন কারো কাছে।

৭) অন্যায়ের প্রতিবাদ করতে পেছপা হবেন না
যদি সঙ্গীর আসলেই দোষ থাকে এবং আপনি চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দেয়ার পরও তিনি না স্বীকার করেন তাহলে কষ্ট পেয়ে আরও অভিমান করে চুপ হয়ে যাবেন না। সমান তেজে নিজের প্রতি হওয়া অন্যায়ের প্রতিবাদ করুন। এতে পরবর্তীতে সঙ্গী ভুল করতে গেল দুবার ভেবে নেবেন।

৮) সম্পর্ক ভাঙার চিন্তা না করে সমস্যা মেটানোর চিন্তা করুন
রাগ বা অভিমান হলে সকলেই প্রথমে সম্পর্ক ভেঙে ফেলার কথাটি ভাবেন। কিন্তু এই বিষয়টি না ভেবে ভাবুন সমস্যা কীভাবে সমাধান করবেন তাহলেই রাগ ও অভিমানের মতো ছোটো ব্যাপার মিটে যাবে খুব সহজেই।

সূত্রঃ patheos.com






মন্তব্য চালু নেই