মেইন ম্যেনু

সংবিধানের ৯৬ অনুচ্ছেদ সংশোধন না করার নির্দেশনা চেয়ে রিট

বিচারপতিদের অভিশংসন (অপসারণ) বিষয়ে সংবিধানের ৯৬ অনুচ্ছেদ সংশোধন না করার নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্ট একটি রিট দায়ের করা হয়েছে।

রোববার হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় রিটটি দায়ের করেন ড. ইউনুস আলী আকন্দ। সোমবার বিচারপতি মির্জা হোসাইন হায়দার ও বিচারপতি মো. খুরশীদ আলম সরকারের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চে এ বিষয়ে শুনানি অনুষ্ঠিত হবে বলে জানিয়েছেন ইউনুস আলী।

১৯৭২ সালের সংবিধানের ৯৬ অনুচ্ছেদে বিচারপতিদের অভিশংসনের ক্ষমতা সংসদের কাছে ছিল। পরে সংবিধানের পঞ্চম সংশোধনীর মাধ্যমে এ ক্ষমতা বিচার বিভাগের কাছে ন্যস্ত হয়। এতে বলা হয়, বিচারপতিদের অভিশংসনে রাষ্ট্রপতির নির্দেশে প্রধান বিচারপতি সুপ্রিম জুডিশিয়াল কাউন্সিল গঠন করতে পারবেন।

সংবিধানের ৯৬ অনুচ্ছেদের ৬ ধারায় বলা হয়েছে- ‘কাউন্সিল তদন্ত করিবার পর রাষ্ট্রপতির নিকট যদি এইরূপ রির্পোট করেন যে, উহার মতে উক্ত বিচারক তাঁহার পদের দায়িত্ব সঠিকভাবে পালনে অযোগ্য হইয়া পড়িয়াছেন অথবা গুরুতর অসদাচরণের জন্য দোষী হইয়াছেন তাহা হইলে রাষ্ট্রপতি আদেশের দ্বারা উক্ত বিচারককে তাঁহার পদ হইতে অপসারিত করিবেন।’

কিন্তু বর্তমান সরকার জাতীয় সংসদের হাতে বিচারপতিদের অভিশংসনের (অপসারণ) ক্ষমতা ফিরিয়ে আনার উদ্যোগ নিয়েছে।

সংবিধানে এই সংশোধনীটি যাতে না আনা হয় সেই নির্দেশনা চেয়েই রিটটি দায়ের করা হয়েছে। আইন ও মন্ত্রী পরিষদের সচিবকে এ রিটে বিবাদী করা হয়েছে।

সংবিধানের ৯৪ অনুচ্ছেদের ৪ ধারায় রয়েছে- ‘এই সংবিধানের বিধানাবলী-সাপেক্ষে প্রধান বিচারপতি এবং অন্যান্য বিচারক বিচারকার্য পালনের ক্ষেত্রে স্বাধীন থাকিবেন।’

সেক্ষেত্রে সরকার যদি এটি সংশোধনের উদ্যোগ নেয় তবে বিচারপতিদের কাজে বাধা আসবে বলে রিটে উল্লেখ করা হয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই