মেইন ম্যেনু

রোববার থেকে মিলবে ট্রেন ও বিআরটিসির অগ্রিম টিকিট

সারাদেশে আন্তঃনগর ট্রেন ও বিআরটিসি বাসের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু হবে রোববার। চলবে আগামী ২৪ জুলাই পর্যন্ত। ঘরমুখো মানুষের যাত্রা নিশ্চিত করতে এ উদ্যোগ নিয়েছে সরকার।

এদিকে যাত্রীরা যাতে নিরাপদে টিকিট সংগ্রহ করে প্রিয়জনের সঙ্গে একত্রে ঈদ করতে বাড়ি পৌঁছতে পারে সে লক্ষে কমলাপুর, চট্টগ্রাম, ঈশ্বরদী, রাজশাহী, দিনাজপুর, লালমনিরহাটসহ সকল রেল স্টেশন ও বিআরটিসির সকল বাস ডিপোগুলোতে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে।

রাজধানীর কমলাপুর ও চট্টগ্রাম থেকে এই অগ্রিম টিকিট বিক্রি করা হবে। প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে রেলস্টেশনের কাউন্টারে অগ্রিম টিকিট বিক্রি করা হবে। একজন যাত্রী সর্বোচ্চ ৪টি টিকিট কিনতে পারবেন বলে রেলওয়ে সূত্র জানায়।

প্রথম দিন অর্থাৎ ২০ জুলাইয়ে বিক্রি হবে ২৪ জুলাইয়ের টিকিট, ২১ তারিখে বিক্রি হবে ২৫ তারিখের টিকিট, ২৬ জুলাইয়ের টিকিট বিক্রি হবে ২২ জুলাইয়ে, ২৩ জুলাইয়ে বিক্রি হবে ২৭ জুলাইয়ের টিকিট ও জুলাইয়ের ২৪ তারিখে বিক্রি হবে ২৮ জুলাইয়ের টিকিট।

প্রতিদিন সকাল নয়টা থেকে টিকিট বিক্রি শুরু হয়ে চলবে বিকেল পাঁচটা পর্যন্ত । এদিকে ঈদের পর ফিরতি ট্রেনের টিকিট বিক্রি শুরু হবে ২৭ জুলাই থেকে। সেদিন বিক্রি করা হবে ৩১ জুলাইয়ের ফিরতি ট্রেনের টিকিট। ফিরতি ট্রেনেও একজন যাত্রী সর্বোচ্চ ৪টি টিকিট কিনতে পারবেন।

ঈদের আগে পাঁচ দিন ও ঈদের পরের সাত দিন ‘ঈদ স্পেশাল ট্রেন সার্ভিসের’ মাধ্যমে বাড়তি সেবা দেয়া হবে। ঈদের তিন দিন আগে থেকে মোট সাত জোড়া স্পেশাল ট্রেন চলবে। এর মধ্যে চট্টগ্রাম-চাঁদপুর রুটে দুই জোড়া ট্রেন চলবে। এছাড়া ঢাকা-দেওয়ানগঞ্জ, ঢাকা-পার্বতীপুর, ঢাকা-খুলনা রুটে এক জোড়া করে ঈদ স্পেশাল ট্রেন চলবে। বাকি ৪ জোড়া ঢাকা থেকে কিশোরগঞ্জ যাতায়াত করবে।

জানা গেছে, ঈদ উপলক্ষে বিদ্যমান ট্রেনে বগির সংখ্যা বাড়ানো হবে। এজন্য ১৬৬টি বগি মেরামত করা হয়েছে। পাশাপাশি ২০৫টি ইঞ্জিনও প্রস্তুত রয়েছে।

এ ব্যাপারে রেলপথ মন্ত্রী মো. মুজিবুল হক জানান, সীমিত সম্পদের মাধ্যমে সর্বোচ্চ সেবা দিতে শতভাগ প্রস্তুত রেলওয়ে। এছাড়া কালোবাজারি বন্ধে টিকিটের গায়ে যাত্রীদের বয়স ও লিঙ্গ লেখা যোগ করা হয়েছে।

এদিকে প্রতি বছরের মতো এবারও ঈদে যাত্রীদের চাহিদা পূরণে বিআরটিসি অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু করবে ২০ জুলাই থেকে। আর বিশেষ সার্ভিস শুরু হবে ২৪ জুলাই থেকে। ঈদে সংস্থাটি এসি ও নন-এসি মিলে মোট ৯০০ বাস পরিচালনা করবে।

বিআরটিসির মতিঝিল, মহাখালী (দ্বিতল), জোয়ারসাহারা (খিলক্ষেত), কল্যাণপুর, ফকিরাপুল ও গাজীপুর বাস ডিপো থেকে ঈদের অগ্রিম টিকিট বিক্রি করা হবে। এছাড়া ফোনেও টিকিট বুকিং করা যাবে। প্রয়োজনে যে কেউ পুরো বাস রিজার্ভ করতে পারবেন। চট্টগ্রাম থেকে বিভিন্ন গন্তব্যে টিকিট বিক্রি করা হবে।






মন্তব্য চালু নেই