মেইন ম্যেনু

বোমা, দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার ॥ দুই রাউন্ড বর্ষন

যশোরে পুলিশের উপর হামলা

যশোর শহরের পুরাতন কসবা টালী খোলা এলাকায় পুলিশের সাথে এলাকাবাসীর সংর্ঘষের ঘটনা ঘটে। এ সময় এলাবাসীর ইটের আঘাতে পুলিশ কনস্টেবল জিয়া আহত হয়েছে। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ৭ জনকে আটক করেছে। পলাতক সন্ত্রাসীদের ফেলে যাওয়া বোমা ও দেশী অস্ত্র উদ্ধার করেছে। এ ঘটনায় যশোর কোতয়ালি থানায় পৃথক মামলা হয়েছে। আটককৃতরা হচ্ছে পুলিশ লাইন টালী খোলাস্থ সমীরের স্ত্রী কনিকা,আনোয়ার পুলিশের বাড়ির ভাড়াটে মৃত রফিকুল ইসলামের পুত্র নুর ইসলাম টালী খোলার আব্দুল কাদেরের পুত্র মাহাবুব আলম ওরফে নিলু,টালী খোলা মাদ্রাসার মিজানুর রহমানের স্ত্রী ঝর্ণা,আজিবরের স্ত্রী জহুরা,নজরুলের স্ত্রী কোহিনুর,রহমান ফরাজীর স্ত্রী মনোয়ারা।
যশোর কোতয়ালি থানায় এসআই মিজানুর রহমান চৌধুরী বলেছেন,বৃহস্পতিবার রাতে খবর পান উল্লেখিত এলাকায় মৃত হেদায়েতুল ইসলামের বাড়িতে এলাকাবাসী সংঘবদ্ধ হয়ে হামলা চালায়। এ সময় পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছায়। ওই এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে। এতে কনস্টেবল নং১৭৩৬ জিয়া গুরুতর আহত হয়। পুলিশ আত্মরর্ক্ষার জন্য ২ রাউন্ড গুলি বর্ষন করে। পুলিশের ফাঁকা গুলি বর্ষনে এলাকাবাসী পিছু হটে যায়। এ সময় পুলিশ ওই এলাকায় অভিযান চালিয়ে সাতজনকে আটক করে। এ সময় ১০টি হাত বোমা,৩টি রামদা ছোরা,১টি গাছী দা ও ১টি ডেগার উদ্ধার করে।






মন্তব্য চালু নেই