মেইন ম্যেনু

মাদক ব্যবসা করতে জনগণ সংসদে পাঠায়নি : বদি

ইয়াবা চোরাকারবারে কোনো ধরনের সংশ্লিষ্টতা অস্বীকার করেছেন কক্সবাজার-৪ আসনে সরকারদলীয় সংসদ সদস্য আবদুর রহমান বদি। মিয়ানমার-বাংলাদেশ সীমান্তে কাঁটাতারের বেড়া না থাকায় ইয়াবা চোরাচালান হচ্ছে বলেও জানিয়েছেন তিনি। বলেছেন, মাদক ব্যবসা করবেন বলে জনগণ তাকে ভোট দিয়ে সংসদে পাঠায়নি।

বৃহস্পতিবার বিকালে জাতীয় সংসদে রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর ধন্যবাদ প্রস্তাবে দেয়া ভাষণে এই কথা বলেন বদি। মাদকের বিরুদ্ধে অবস্থান নেয়ায় চক্রান্তের স্বীকার দাবি করে বদি বলেন, ‘এর বিরুদ্ধে যখন সোচ্চার হই, আন্দোলন করি, তখন আমার বিরুদ্ধে নানা কথা ছড়ানো হয়।’

মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে ইয়াবার চোরাচালানে টেকনাফের সংসদ সদস্য বদির সম্পৃক্ততার অভিযোগ গণমাধ্যমে এসেছে নানা সময়। বিজিবির গোপন প্রতিবেদনেও তার নাম রয়েছে বলে প্রকাশ পেয়েছে সংবাদ মাধ্যমে। তবে বদি অবশ্য বরাবর তার বিরুদ্ধে আনা সব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

তবে সম্প্রতি ইংরেজি দৈনিক অবজারভার পত্রিকায় প্রকাশিত একটি সংবাদে নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান, ফেনী সদর আসনের সংসদ সদস্য নিজাম হাজারী, রাজশাহীর বাগমারার সংসদ সদস্য এনামুল হক এবং চক্সবাজারের উখিয়া-টেকনাফ আসনের সংসদ সদস্য আবদুর রহমান বদির বিরুদ্ধে মাদক চোরাকারবারে সম্পৃক্ততার অভিযোগ এনে সংবাদ প্রকাশ করা হয়েছে। এ জন্য অবজারভার এবং তার সম্পাদক ইকবাল সোবহান চৌধুরীর তীব্র সমালোচনা করেন বদি।

বদি বলেন, ‘কী আর বলবো! কিছুদিন আগে দৈনিক অবজারভারে চারজনকে মাদকের গডফাদার হিসেবে আমাদের বলা হয়েছে। ইকবাল সোবহান চৌধুরী এর সম্পাদক। তিনি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার তথ্য উপদেষ্টা। আশা ছিল আজকে প্রধানমন্ত্রী আমার বক্তব্য শুনতে এখানে থাকবেন। দুঃখের বিষয় তিনি আজকে এখানে নেই।’

অবজারভার সম্পাদককে উদ্দেশ্য করে বদি বলেন, ‘যদি আমার বিরুদ্ধে কোনো কিছু থাকে, কোনো তথ্য প্রমাণ যদি ইকবাল সোবহান চৌধুরীর বিরুদ্ধে থাকে তাহলে তা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বা আপনাকে (স্পিকার) দিয়ে আমাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া যেতো। কিন্তু তিনি আমাদের মানসম্মান নষ্ট করেছেন।’

বদি বলেন, ‘উখিয়া, টেকনাফ এলাকার জনসাধারণ তাদের কষ্টার্জিত ভোট দিয়ে আমাকে এই মহান পবিত্র সংসদে পাঠিয়েছে। বঙ্গবন্ধুর কন্যা বিশ্বাস করে আমাকে নমিনেশন দিয়েছেন, মাদক ব্যবসা করার জন্য নয়। মাদক ব্যবসা করে এ দেশের মান সম্মান, এ দেশের ভবিষ্যত নষ্ট করার জন্য এই পবিত্র সংসদে আসার জন্য জনগণ আমাকে সুযোগ দেয়নি।’






মন্তব্য চালু নেই