মেইন ম্যেনু

ভয়ংকর জঙ্গি সংগঠনের আত্মপ্রকাশ

আনসারুল্লাহ বাংলাটিম নিষিদ্ধ হতে না হতেই জুনুদ আল তাওহিদ ওয়াল খেলাফাহ নামের নতুন আরেকটি সশস্ত্র জঙ্গি সংগঠন গড়ে ওঠেছে বাংলাদেশে। নিষিদ্ধ আনসারুল্লাহর সঙ্গে সমন্বয় করে মধ্যপ্রাচ্যের ইরাক ও সিরিয়ার জঙ্গি সংগঠন আইএসআইএসের আদলে তারা বিভিন্ন কার্যক্রম পরিচালনা করছে। তাদের লক্ষ্য বর্তমান সরকারকে উৎখাত করে বাংলাদেশে ইসলামি খেলাফত কায়েম করা।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আটক আইএসআইএসের সদস্য আব্দুল্লাহ আল গালিব (২৫) এমন তথ্য দিয়েছে বলে দাবি করেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।

গতকাল শনিবার রাতে বারিধারা ডিওএইচএস এলাকার ২ নম্বর লেনের ২১ নম্বর বাসা থেকে তাকে আটক করা হয়।

আজ রোববার ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে ডিবিডিসি (উত্তর) শেখ নাজমুল আলম জানান, গালিব আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের সহ-সমন্বয়ক। এর আগে তিনি হিজবুত তাহরিরের সদস্য ছিলেন।

বর্তমানে তিনি আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের সঙ্গে সমন্বয়ের মাধ্যমে জুনুদ আল তাওহিদ ওয়াল খেলাফাহ নামে একটি সশস্ত্র জঙ্গি সংগঠন গড়ে তুলেছেন। তাদের উদ্দেশ্য আইএসআইএসের আদলে বাংলাদেশে খেলাফত প্রতিষ্ঠা করা।

ডিবির দাবি, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গালিব স্বীকার করেছে সে আইএসআইএসের একজন সক্রিয় সদস্য। বর্তমান সরকারকে উৎখাত করে দেশে খেলাফত প্রতিষ্ঠার জন্য গোপনে অর্থ ও কর্মী সংগ্রহ করে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড পরিচালনা করে আসছিল। আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি ঘটিয়ে দেশের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের টার্গেট করে হত্যা করাই ছিল তাদের লক্ষ্য।

শেখ নাজমুল জানান, ইন্টারনেট ও ফেসবুকে গালিবের একাধিক অ্যাকাউনট রয়েছে। এর মাধ্যমে তিনি কর্মী সংগ্রহ করতেন। বর্তমানে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে সংগঠনটির সদস্যরা তৎপর রয়েছে।

তিনি বলেন, ‘গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারি, গতকাল রাতে বারিধারায় ১০-১২ জন অজ্ঞাত আনসাররুল্লাহ বাংলা টিমের সদস্যদের সঙ্গে গোপন বৈঠকে বসেন গালিব। আইএসআইএসের জন্য সদস্য সংগ্রহের জন্য তারা ওই বৈঠক ডেকেছিল। এসময় অন্যরা পালিয়ে গেলেও গালিবকে আটক করা হয়। তার কাছে থেকে ১টি পাসপোর্ট, ১টি সিপিইউ, ৪টি হার্ডডিস্ক, ১০টি সিডি, ৪৩টি ইসলামি জিহাদি বই, একটি পাকিস্তানি টুপি, মইনুল ইসলাম সম্পাদিত ৩টি মাসিক পত্রিকা জব্দ করা হয়।’

গালিবের বাবা সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর। তারা দুই ভাই এক বোন। বড় ভাই ইংল্যান্ডে লেখাপড়া করে। একমাত্র বোন ডিভোর্সের পর বাবার বাসায় থাকেন। গালিব ইংলিশ মিডিয়াম স্কুল থেকে এ লেভেল পাস করে আতরের ব্যবসা করতেন।

শেখ নাজমুল জানান, গালিব বিভিন্ন সময়ে তুরস্ক যাওয়ার জন্য ভিসা পাওয়া চেষ্টা করছিল। এ সংক্রান্ত কাগজপত্র তার বাসা থেকে জব্দ করা হয়েছে।

গালিবের কাছ থেকে প্রাপ্ত সিডি দেখে গোয়েন্দারা জানতে পেরেছে, তারা সশস্ত্র প্রশিক্ষণ চালাচ্ছিল। তবে কোন স্থানে এ প্রশিক্ষণ কার্যক্রম চালানো হতো সে বিষয়ে কোন তথ্য দিতে পারেনি ডিবি।

তিনি জানান, জুনুদ আল তাওহিদ ওয়াল খেলাফাহ সংগঠনটি একবারেই নতুন। এর আগে এ ধরনের নাম তারা শোনেননি। গালিবকে রিমান্ড এনে জিজ্ঞাসবাদ করলে আরো তথ্য পাওয়া যাবে।

ইতোপূর্বে আইএসের সঙ্গে সম্পৃক্তির অভিযোগে যে দুইজনকে আটক করা হয়েছে তাদের সঙ্গে গালিবের কোনো সম্পর্ক আছে কি না তা জানাতে পারেননি শেখ নাজমুল।






মন্তব্য চালু নেই