মেইন ম্যেনু

ভুয়া মুক্তিযোদ্ধা সনদ : জবাব দিলেন চার সচিব

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের কারণ দর্শানোর (শোকজ) নোটিশের জবাব দিয়েছেন জালিয়াতি করে মুক্তিযোদ্ধা সনদ নেওয়া তিন সচিব ও এক যুগ্ম সচিব।

মঙ্গলবার জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো. শাজাহান আলী মোল্লা এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

গত ১৩ অক্টোবর অসদাচরণের জন্য ব্যবস্থা নেওয়া হবে না কেন তা জানতে চেয়ে দশ দিনের মধ্যে ব্যাখ্যা চায় জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় । একই অভিযোগে অভিযুক্ত প্রতিমন্ত্রী পদমর্যাদায় বেসরকারিকরণ কমিশনের চেয়ারম্যান মোল্লা ওয়াহিদুজ্জামানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগকে চিঠি দেয়।

সনদ বাতিল হওয়া এই চারজন হলেন স্বাস্থ্যসচিব এম এম নিয়াজ উদ্দিন, সরকারি কর্মকমিশনের (পিএসসি) সচিব এ কে এম আমির হোসেন, মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রাক্তন সচিব, বর্তমানে ওএসডি কে এইচ মাসুদ সিদ্দিকী এবং একই মন্ত্রণালয়ের প্রাক্তন যুগ্ম সচিব আবুল কাসেম তালুকদার। তবে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের প্রাক্তন সচিব মোল্লা ওয়াহিদুজ্জামানের মুক্তিযোদ্ধা সনদ ও গেজেট প্রাথমিকভাবে স্থগিত করা হয়েছে। তিনি বর্তমানে প্রতিমন্ত্রী মর্যাদায় বেসরকারিকরণ কমিশনের চেয়ারম্যানের দায়িত্বে রয়েছেন।

ইতিপূর্বে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) অনুসন্ধান শেষে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের কাছে পাঠানো চিঠিতে জানিয়েছে, প্রশাসনের এই শীর্ষ কর্মকর্তারা মুক্তিযোদ্ধা না হয়ে মিথ্যা তথ্য দিয়ে মুক্তিযোদ্ধা সনদ নিয়েছেন। এতে করে তারা সরকারি নির্দেশনা, পরিপত্র ও আইন অমান্য করে অসদাচরণ করেছেন।






মন্তব্য চালু নেই