মেইন ম্যেনু

ভুমিকম্পে টিউবয়েলের পানি বিষাক্ত হওয়ার গুজবে আতংকিত সাধারণ মানুষেরা

গত ৩দিনে পৃথিবীর নেপাল,ভারত,বাংলাদেশ সহ কয়েকটি দেশের ভূমিতে কম্পনে প্রানহানিসহ ব্যাপক ক্ষতিসাধন হয় নেপালে। এই ভুমি কম্পনের ফলে টিউবওয়েলে পানিতেও নাকি বিষাক্ত জীবানু সন্ধান ছড়িয়ে ছিটিয়ে পড়েছে এমনি এক গুজবে বগুড়া-রংপুর, নাটোর- জয়পুরহাট সহ দেশে বিভিন্ন অঞ্চলের সাধারণ মানুষ তাদের টিউবওয়েল থেকে পানি সংগ্রহ না করে বিভিন্ন পানি বিশুদ্ধ করার করার চেষ্টা চালাচ্ছে। তবে এ ঘটনাটি গুজব বলে উড়িয়ে দিয়ে সচরাচরভাবে টিউবওয়েলেও পানি সেবনের পরামর্শ দিয়েছে বগুড়া পল্লী উন্নয়ন একাডেমী পানি ব্যাবস্থাপনা কেন্দ্রের পরিচালনা পর্ষদ।

জানা যায়, গত তিনদিন একটানা ভুমিকম্পন হওয়ায় টিউবওয়েলের পানি খাওয়া যাবেনা, খেলে মানুষের মৃত্যু সহ বড় রকমের রোগ হবে। এমনি গুজবে আজ মঙ্গলবার থেকে টিউবওয়েলের পানি পান না করার জন্যে উত্তরাঞ্চলে গ্রামাঞ্চলে গুজব ছড়িয়ে পড়েছে। এতে গ্রামের মানুষগুলো আগামী তিন দিনের জীবন যাপনের জন্য বিভিন্ন পাত্রে পানি জমিয়ে রাখার চেষ্টা করছে। গুজবে আরো বলা হয় টিউবওয়েলের পানিতে বিষ ছড়িয়ে পড়েছে, এই ভিত্তিহীন গুজব বগুড়ার শেরপুর উপজেলারসহ বিভিন্ন উপজেলায় শোনা গেছে।এনিয়ে সাধারণ মানুষদের মধ্যে চরম আতঙ্ক বিরাজ করছে।

এমন গুজব ছড়িয়ে পড়ায় গ্রামের অনেক সাধারণ মানুষ আতঙ্কে টিউবওয়েলের পানি রাতের বেলায় জমা রেখে দিনের বেলায় ব্যবহার করে আসছেন । কিছু পরিবার দিনের বেলায় পানি পান করা বন্ধ করা শুরু করেছে। এদিকে এমন গুজব ছড়িয়ে পড়ার ঘটনার সত্যতা যাচাই করার জন্য বিভিন্ন গ্রাম থেকে সচেতন মহলের কাছে ফোন আসছে। শেরপুর উপজেলার শুবলী গ্রামের ছবুরা বেগম বলেন, আমরা এমন গুজব শুনে আতংকিত হয়ে পড়েছিলাম ,পড়ে বিশ্বাস করিনি। এলাকার সবাই গুজবের বিষয়ে জানতে চায়। বিশেষ করে মহিলাদের মধ্যে এই গুজবের কথা বেশি আলোচনা করতে দেখা গেছে। নাটোর জেলার তেবাড়িয়া এলাকার হুমায়রা খাতুন বলেন, আমাদের বাসায় ২/৩ জন ফেরিওয়ালা এসে বলে যায়, আজ থেকে তিন দিন টিউবয়েলের পানি খাওয় যাবেনা। ভুমিকম্পে পানিতে বিষ এসেছে।

ডাঃ জাবেদ ইকবাল বাবু বলেন, এটা একটা গুজব কেননা আমি আজকের সারা দিনে প্রায় ১ লিটারের বেশী পানি খেয়েছি। স্বাস্থ্য গত কোন অসুবিধা হয় নাই। আমি ভাল আছি। এই গুজবটা চিলে কান নিয়ে যাওয়ার মত। পানিতে কোন সমস্যা নেই। এতে বৈজ্ঞানিক কোন ভিত্তি নেই। আমার চেম্বারে শহর এবং গ্রাম থেকে বিভিন্ন রোগী আসে। এধরনের গুজব অনেকের মূখ থেকে শুনেছি। তবে কারো কোন সমস্যা হয়েছে বলে আমার জানা নেই। এটা মিথ্যা এবং গুজব।

এ ব্যাপারে বগুড়া পল্লী উন্নয়ন একাডেমীর মহাপরিচালক এম এ মতিন বলেন, ভুমিকম্পনে টিউবওয়েলে পানির কোন সমস্যা হয়নি, স্রেফ এটি একটি গুজব। এতে আতঙ্কিত হওয়ার কিছুই নেই । ভুকিম্পের সাথে টিউবয়েলের পানির কোন সম্পর্ক নেই কারন টিউবয়েলের পানি যে স্তর থেকে তোলা হয় ভুমিকম্পনের কেন্দ্র সেখান থেকে অনেক অনেক বেশী দুর ও গভীরে। এ ধরনের ঘটনা ঘটার কোন সম্ভাবনা নাই। হতে পারে দু’ একটা টিউবয়েলে ভুিমকম্পের কারণে পাইপের তলা ফেটে গিয়ে পানির সাথে কাদা ময়লা উঠতে পারে। এ ধরনের গুজব বিগত ২৮ সেপ্টেন্বর ২০১১ সালেও বিভিন্ন এলাকায় শোনা গিয়েছিল। তবে কারো কোন ক্ষতি হয়েছে এমন নজির পাওয়া যায় নাই।






মন্তব্য চালু নেই