মেইন ম্যেনু

ভারতের ভিসা সহজে দিল্লির সঙ্গে আলোচনা চলছে: পররাষ্ট্র মন্ত্রী

বাংলাদেশিদের জন্য প্রতিবেশী দেশ ভারতের ভিসা প্রক্রিয়া সহজ করার বিষয়ে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রীর সঙ্গে আলাপ হয়েছে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্র মন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী।
বুধবার জাতীয় সংসদে এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, “এটি একটি জটিল বিষয়। তারপরও বিষয়টি নিয়ে ভারতের সঙ্গে আলোচনা চলছে।”
স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য হাজি মো. সেলিম পররাষ্ট্র মন্ত্রীর কাছে প্রশ্ন করেন- “ভারতীয় ভিসা পেতে বাংলাদেশিদের নানা ভাবে হয়রানির শিকার হতে হয়। ভিসা প্রক্রিয়া সহজ করতে ই-টোকেন সিস্টেম চালু করা হলেও সেটাই এখন হয়রানির মূল কারণ হয়ে দেখা দিয়েছে। কারণ শতবার চেষ্টা করেও সাধারণ জনগন ই-টোকেন পাচ্ছে না। আবার এটি নিয়ে একটি মহল বাণিজ্য করছে।”
তিনি বলেন, “ভারতের সঙ্গে পাকিস্তানের তিনবার যুদ্ধ হলেও পাকিস্তানিদের ভিসা পেতে বাংলাদেশিদের মতো দুর্ভোগ পোহাতে হয় না। এই ভিসা প্রক্রিয়া সহজ করতে সরকার কোন উদ্যোগ নিয়েছে কিনা?”
সম্প্রতি ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রীর ঢাকা সফরের সময় দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র সৈয়দ আকবরউদ্দিন জানান, ভারত সরকার এর মধ্যেই ৬৫ বছরের বেশি এবং ১৩ বছরের কম বয়সীদের জন্য পাঁচ বছরের মাল্টিপল এন্ট্রি ভিসা দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।
নুরুল ইসলাম সুজনের প্রশ্নের জবাবে পররাষ্ট্র মন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী জানান, আফ্রিকার বিভিন্ন দেশে কৃষি জমি লিজ নিয়ে খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত ও কর্মসংস্থান সৃষ্টির ব্যাপক সম্ভাবনা থাকা সত্বেও বাংলাদেশ ফরেন এক্সচেঞ্জ রেগুলেশন অ্যাক্ট-১৯৪৭ এর কিছু বিধি নিষেধের কারণে এ ব্যাপারে উল্লেখযোগ্য সাফল্য অর্জন করা সম্ভব হয়নি।
এদিকে মো. আয়েন উদ্দিনের প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন জানান, বিগত ৫ বছরে এক হাজার ১৬০ জন বাংলাদেশি নাগরিককে বিএসএফ বিজিবি’র কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই