মেইন ম্যেনু

প্রেমের অপরাধে মধ্যযুগীয় কায়দায় পঞ্চায়েতের সাজা

প্রেমের সম্পর্ক থাকায় ভারতের রাজস্থানের পঞ্চায়েত এক কিশোর-কিশোরী যুগলকে মধ্যযুগীয় ব্যবস্থায় সাজা দিয়েছে।

রাজস্থানের ছোটা উদয়পুর এলাকার পঞ্চায়েত ওই যুগলের কাছ থেকে মোটা অংকের টাকা জরিমান আদায় সহ মেয়েটিকে ঘোড়ার মত আচরন এবং ছেলেটিকে মেয়ের পিঠে ওঠায় বাধ্য করা হয়েছে। ঘোড়ার আওয়াজ নকল করে টানা চেঁচিয়ে যেতে হয় মেয়েটিকে। আর এই চরম অবমাননার নীরব দর্শক থেকেছেন গ্রামটির সকল বাসিন্দারা। যাদের মধ্যে ছিলেন ওই যুগলের বাবা-মাও।

এছাড়াও তাদের ঘুঁটের মালা পড়িয়ে রাস্তায় কান ধরে ওঠবস করানো হয়।

কিশোরী ক্লাস নাইনের শিক্ষার্থী। প্রাথমিকের গণ্ডি পেরনোর আগেই লেখাপড়ায় ইতি পড়েছে কিশোরটির। কিছুদিন আগে দুজনে বিয়ে করবে বলে পালিয়ে গিয়েছিল। অনেক খুঁজে তাদের বাড়ি ফিরিয়ে আনেন আত্মীয়রা। এরপরই শুরু হয় মুরুব্বিদের উদ্যোগ।

কিশোর-কিশোরীর সবক শেখাতে, শাস্তি দিতে পঞ্চায়েতে সভা ডাকা হয়। পঞ্চায়েত তাদের এ নির্মম শাস্তির মুখোমুখি করে।

কিন্তু, কেউই পঞ্চায়েতের বিরুদ্ধে টুঁ শব্দটি করার সাহস দেখাতে পারেননি।






মন্তব্য চালু নেই