মেইন ম্যেনু

পুলিশ অফিসার বাবা মায়ের হত্যার অভিযোগে আটক ঐশী কেমন আছে কারাগারে?

ও-লেভেল পরীক্ষা দেয়া হলো না ঐশী রহমানের। কারা অন্তরীণ অবস্থায় ব্রিটিশ কাউন্সিলের অধীনে অনুষ্ঠিত ও-লেভেল পরীক্ষা নেয়ার বিধান না থাকায় প্রস্তুতি নেয়ার পরও ঐশীর পরীক্ষা দেয়া হয়নি। পরীক্ষা দিতে না পারলেও কারাগার থেকে ছাড়া পাওয়ার আশায় তিনি কারাগারের ভেতরে নিয়মিত পড়াশুনা করছেন। আজ বুধবার কারা কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলে এটা জানা গেছে।

কারাসূত্র জানায়, সাজাপ্রাপ্ত আসামি না হওয়ায় কারাগারে তাকে তেমন কোন কাজকর্ম করতে হয়না। গত ১৯ জানুয়ারি রবিবার তার আইনজীবী ও-লেভেল পরীক্ষায় অশংগ্রহণের গ্রাউন্ড দেখিয়ে জামিনের আবেদন করেন। ওই সময়ে ঢাকা মহানগর হাকিম আসাদুজ্জামান নুর তার জামিনের আবেদন নাকচ করে দেন।

আদালতের ওই আদেশ কারাগারে পৌছামাত্র কারাগার তাকে বইপত্র সরবরাহ করে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত ব্রিটিশ কাউন্সিলের অনুমাতি না মেলায় তার পরীক্ষা দেওয়া হয়নি। বর্তমানে ঐশী অন্যান্য বন্দীদের সাথে গল্প করে আড্ডা দিয়ে সময় কাটানোর ছাড়াও প্রতিদিন পড়াশোনা করছে। এছাড়া নামাজ পড়াসহ বিভিন্ন ধরণের ধর্মীয় বই পড়েও সে সময় কাটায়।

ঐশীর চাচা মশিউর রহমান রুবেল বলেন, এ বছরের মে মাসে ঐশীর ও-লেভেল পরীক্ষা দেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু ব্রিটিশ কাউন্সিলের অধীনে অনুষ্ঠিত পরীক্ষায় কোন হাজতী বা বন্দীর পরীক্ষায় অংশগ্রহণের সুযোগ না থাকায় তাঁর পরীক্ষা দেওয়া হয়নি।

এ ব্যাপারে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের তত্ত্বাবধায়ক ফরমান আলী জানান,কারাগারে ঐশী ভালোই আছে, সে নিয়মিত পড়াশোনা করছে। অন্যান্য বন্দীদের সাথে তাঁর সম্পর্কও বেশ ভালো। তবে সব সময়ে তার ব্যাপারে নজরদারী করা সম্ভব হয় না।

গত বছরের ১৬ আগস্ট রাজধানীর চামেলি বাগের নিজ বাসা থেকে পুলিশের বিশেষ শাখার পরিদর্শক মাহফুজুর রহমান ও তার স্ত্রী আয়েশা রহমান স্বপ্নার রক্তাক্ত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এর পরদিন তাদের মেয়ে ঐশী রহমান রমনা থানায় হাজির হয়ে পিতা-মাতাকে হত্যার দায় স্বীকার করেন। এছাড়াও ২৪ আগস্ট আদালতে খুনের দায় স্বীকার করে জবানবন্দি দেয়।

আরো পড়তে পারেনঃ পুলিশ দম্পতি হত্যাকাণ্ড ॥ আত্মহত্যা করতে চেয়েছিল ঐশী ॥ ‘সুইসাইডাল’ নোটে যা ছিল






মন্তব্য চালু নেই