মেইন ম্যেনু

পদ নেই, তবু পদোন্নতির উদ্যোগ

পর্যাপ্ত পদ না থাকলেও জনপ্রশাসনে উপসচিব থেকে সচিব পর্যন্ত চার স্তরে আরেক দফায় পদোন্নতির প্রক্রিয়া শুরু করেছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়। এ জন্য এখন পদোন্নতি পাওয়ার মতো যোগ্য কর্মকর্তাদের তালিকা প্রণয়নের কাজ করছে তারা।

আগামী মাসের মধ্যে এই পদোন্নতির পরিকল্পনা করা হয়েছে বলে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সূত্রে জানা গেছে। এই পদোন্নতি হলে বর্তমান সরকারের আমলে এটাই হবে বড় পদোন্নতি। এর আগে বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার প্রথম কার্যদিবসে (১৩ জানুয়ারি) অতিরিক্ত সচিব পদে ৮০ জনকে পদোন্নতি দেওয়া হয়েছিল।

জানতে চাইলে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ইসমত আরা সাদেক প্রথম আলোকে বলেন, উপসচিব থেকে সচিব পর্যন্ত চার স্তরে ডিসেম্বরের মধ্যেই এই পদোন্নতির চেষ্টা চলছে। না হলে সামান্য কিছু দেরি হতে পারে।

জনপ্রশাসনের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তারা অভিযোগ করেছেন, পর্যাপ্ত পদ না থাকা সত্ত্বেও কর্মকর্তাদের ঢালাওভাবে পদোন্নতি দেওয়ার কারণে জনপ্রশাসনে উপসচিব থেকে ওপরের স্তরের পদগুলোতে মাত্রাতিরিক্ত কর্মকর্তা হয়ে গেছেন। ফলে জনপ্রশাসনের আদর্শ কাঠামো (পিরামিড কাঠামো) ভেঙে গিয়ে মাথা মোটা হয়ে গেছে। আদর্শ নিয়মে নিচের স্তরের পদগুলোতে কর্মকর্তা বেশি থাকে আর ওপরের স্তরে কম হয়। কিন্তু বর্তমানে প্রশাসনের কাঠামো উল্টো পিরামিডের মতো হয়ে গেছে। এই অবস্থায় নতুন পদোন্নতি এ সমস্যা আরও বাড়াবে।

তবে প্রশাসনের কর্মকর্তারা বলছেন, নিয়মিত পদোন্নতি না হলে চাকরির প্রতি কর্মকর্তাদের আগ্রহ কমে যাবে। এ জন্য পদোন্নতি নিয়মিতই হওয়া উচিত।

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সূত্রমতে, প্রশাসন ক্যাডারে মোট কর্মকর্তার সংখ্যা এখন প্রায় পাঁচ হাজার। গত সাড়ে পাঁচ বছরে কয়েক দফায় প্রায় আড়াই হাজার কর্মকর্তার পদোন্নতি হয়েছে। বর্তমানে উপসচিবের নিয়মিত (ডিউটি) পদ আছে ৮৩০টি। কিন্তু বর্তমানে উপসচিব আছেন এক হাজার ২৮৮ জন। নতুন করে আরও দুই শতাধিক কর্মকর্তার পদোন্নতির প্রক্রিয়া চলছে।

উপসচিব পদে পদোন্নতির জন্য গত বছরের অক্টোবরে পদোন্নতি-সংক্রান্ত সুপিরিয়র সিলেকশন বোর্ডের সভা অনুষ্ঠিত হয়। কিন্তু এক বছরেও পদোন্নতি না হওয়ায় সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

২০তম বিসিএস ব্যাচের একাধিক কর্মকর্তা বলেন, তাঁরা চাকরি করছেন প্রায় ১৩ বছর ধরে। অথচ এখনো উপসচিব হতে পারছেন না। অথচ পুলিশসহ সমমানের অন্যান্য পেশায় অনেকের পদোন্নতি হয়ে গেছে। এ জন্য তাঁরা দ্রুত পদোন্নতি চান।

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের তথ্যমতে, যুগ্ম সচিবের পদ আছে ৪৩০টি। বিপরীতে কর্মরত আছেন ৯০৪ জন। অতিরিক্ত সচিবের ১০৭টি পদের বিপরীতে কর্মরত আছেন ২৫৮ জন। আর সচিব আছেন ৭৪ জন।

মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্ট সূত্র বলছে, এবার অতিরিক্ত সচিব পদে পদোন্নতিতে বিসিএস ১৯৮৫ ব্যাচের কর্মকর্তাদের গুরুত্ব দেওয়া হবে। আর যুগ্ম সচিব পদে এর নিচের ব্যাচের কর্মকর্তাদের বিবেচনা করা হবে। সচিব পর্যায়ে ইতিমধ্যে পদোন্নতির প্রক্রিয়া কার্যকর শুরু হয়েছে। ৯ নভেম্বরও তিনজন অতিরিক্ত সচিবকে ভারপ্রাপ্ত সচিব হিসেবে পদোন্নতি দেওয়া হয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই