মেইন ম্যেনু

দুই মামার বিরোধ থামাতে গিয়ে যুবক নিহত

জমি-জমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে বগুড়ার শাজাহানপুর উপজেলায় দুই মামার সংঘর্ষ থামাতে গিয়ে আরাফাত (২৫) নামে এক যুবক ছুরিকাঘাতে নিহত হয়েছেন।

বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে উপজেলার আশেকপুর ইউনিয়নের পারতেখুর উওরপাড়ায় এ ঘটনা ঘটে। দুপুরে নিহতের লাশ উদ্ধার করে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ।

আরাফাত উপজেলার আশেকপুর ইউনিয়নের পারতেখুর উওরপাড়া গ্রামের চাঁনমিয়ার ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, পারতেখুর উত্তরপাড়ার আব্দুল গফুর মণ্ডলের দুই ছেলে আব্দুল মালেক (৪২) ও মিরাজুল ইসলামের ( ২৭) মধ্যে জমি-জমা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলছিল। এর জের ধরে বৃহস্পতিবার সকাল সাতটার দিকে গাছ লাগানো ঘিরে দুই ভাইয়ের মধ্যে বাকবিতণ্ডা হয়। এক পর্যায়ে তারা সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।

এদিকে, সংঘর্ষের সময় বড় ভাই আব্দুল মালেক ছুরিকাঘাতে আহত হয়ে চিৎকার করতে থাকলে ভাগ্নে আরাফাত তাকে বাঁচাতে এগিয়ে যায়। এতে বাধা দেয় ছোটমামা। উত্তেজনার এক পর্যায়ে আরাফাতের বুকে ছুরিকাঘাত করা হয়। এসময় ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায় ছোট ভাই মিরাজুল।

গ্রামবাসী আহত মামা-ভাগ্নেকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেয়ার পথেই আরাফাতের মৃত্যু হয়। বড় মামা আব্দুল মালেক চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

ঘটনার পর কয়েকজন যুবক শাজাহান আলী নামে এক ব্যক্তির দোকানে হামলা ও লুটপাটের চেষ্টা চালায়। খবর পেয়ে শাজাহানপুর থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে।

শাজাহানপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল মান্নান জানান, দুই মামার মধ্যে মারামারি থামাতে গিয়ে ছুরিকাঘাতে নিহত হয়েছে ভাগ্নে আরাফাত। এ হত্যাকাণ্ডের তদন্ত চলছে।






মন্তব্য চালু নেই