মেইন ম্যেনু

ব্যস্ত সময় কাটালেন শচীন

শিশুদের হাত ধোয়ালেন শচীন

বিশ্বসেরা ব্যাটসম্যান লিটল মাস্টার শচীন টেন্ডুলকার নারায়নগঞ্জের রূপগঞ্জে আসবেন এটা যেন অনেকের কাছেই ছিল অবিশ্বাস্য। তবে সেই অবিশ্বাসের ঘোর ভাঙ্গে, মঙ্গলবার দুপুর ১২টা ৫মিনিট যখন শচীনকে বহন করা হেলিকপ্টার রূপগঞ্জে অবতরণ করে তখন।
অবিশ্বাসের দোলাচল ভেঙে তখন হাজারো মানুষ হুমড়ি খেয়ে পড়ে ২২ গজের পিচে বোলারদের শায়েস্তা করা এ খ্যাতিমান ক্রিকেটারকে দেখতে।
শতশত বেলুন উড়িয়ে শুভেচ্ছা জানানো হয় কিংবদন্তি এই ক্রিকেটারকে। মাত্র ২৫মিনিটের জন্য রূপগঞ্জে ছিলেন শচীন। এই সময়টাই ছিল যেন স্থানীয় নোয়াপাড়া প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠে উপস্থিতি জনতার জন্য এক মহেন্দ্রক্ষণ।
ইউনিসেফের বিশেষ দূত হিসেবে রূপগঞ্জের নোয়াপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের স্যানিটেশন বিষয়ে সচেতনামূলক একটি অনুষ্ঠানে হাজির হন শচীন।
ওই সময়ে তিনি স্যানিটেশন সম্পর্কে শিক্ষার্থীদের আরো সচেতন, খাবারের আগে ও পরে হাত ধোয়া, বাথরুম শেষে হাত ধোয়া সহ বিভিন্ন বিষয়ে পরামর্শ দেন। স্বাস্থ্য সচেতনতার অংশ হিসেবে এক শিশুর হাত ধরে নিজেই দেখালেন কিভাবে খাবারের আগে-পরে হাত ধুতে হয়। এছাড়া ক্রিকেট খেলতেও স্থানীয় শিক্ষার্থীদের উৎসাহ দেন শচীন টেন্ডুলকার।
এসময় নোয়াপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়কে ৫ লাখ টাকার একটি চেকও হস্তান্তর করেন সেঞ্চুরির সেঞ্চুরি করা ব্যাটসম্যান।
এ সময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন, লিজেন্ট অব রূপগঞ্জ ক্রিকেট ক্লাবের চেয়ারম্যান লুৎফর রহমান রহমান বাদল, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) লোকমান হোসেন, তারাব পৌর সভার মেয়র সফিকুল ইসলাম চৌধুরীসহ আরো অনেকে। দুপুর সাড়ে ১২টায় আবার হেলিকপ্টার যোগে ঢাকা চলে যান তিনি।
মঙ্গলবার দুপুর ১২টা ৫ মিনিটে হেলকপ্টারযোগে বন্দর নগরীতে পৌঁছেন ক্রিকেট ঈশ্বর। পৌরসভার বিশ্বরোড এলাকায় বালুর মাঠে হেলিকপ্টার থেকে অবতরণ করেন শচীন।

র আগে বেলা ১১ টায় ঢাকায় পৌঁছে রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলে ‘লিজেন্ড অব রূপগঞ্জ’ ক্লাবের মোড়ক উন্মোচন করেন শচীন। এরপর ইউনিসেফের বিশেষ দূত হিসেবে নগরীর তারার পৌরসভার নোয়াপাড়া প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের স্যানিটেশন সম্পর্কে পরামর্শও প্রদান করেন ‘ব্যাটিং মায়েস্ত্রো’। এই সময় লিজেন্ড অব রূপগঞ্জের কর্ণধার লুৎফর রহমান বাদল ও তারার পৌরসভার মেয়র সফিকুল ইসলাম চৌধুরী শচীনের পাশে উপস্থিত ছিলেন। দুপুর ১২.৫০ মিনিটে রূপগঞ্জ ত্যাগ করেন ভারতীয় লিটল জিনিয়াস।






মন্তব্য চালু নেই